এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের মাঝেই গেরুয়া শিবিরের বড় ধাক্কা এই রাজ্যে – জানুন বিস্তারিত

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের মাঝেই গেরুয়া শিবিরের বড় ধাক্কা এই রাজ্যে – জানুন বিস্তারিত

লোকসভা ভোটের আগেই বড় ধাক্কা উত্তরাখন্ডের গেরুয়াশিবিরে। রাজ্যের পুরভোটের ফল চিন্তার কারণ হতে চলেছে বিজেপির। গতবছরই বিরোধীদের বিপুল সংখ্যায় হারিয়ে উত্তরাখন্ডে ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি। তাই স্বাভাবিকভাবেই এই রাজ্যের স্থানীয় নির্বাচনে বিজেপি এগিয়ে থাকবে,এটাই প্রত্যাশিত ছিল।

কিন্তু এক বছরের ব্যাবধানে প্রতিষ্ঠান বিরোধী হাওয়া দেখে চক্ষু চড়কগাছ শাসকশিবির কর্তাদের। হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ট রাজ্যটিকে বিজেপিকে টেক্কা দিয়ে এগিয়ে রয়েছে কংগ্রস। ৭ টি মেয়র পদের নির্বাচনে ৩ টিতে জয় হাসিল করেছে কংগ্রেস,বিজেপি পেয়েছে ৩ টি আসন আর ১ টি আসনে এগিয়ে নির্দল প্রার্থী। এমনটাই জানা গিয়েছে।

গতবছর উত্তরাখন্ডের বিধানসভা নির্বাচনে ৭০ টি আসনের মধ্যে ৫৭ টি অধিকার করে এগিয়ে ছিল বিজেপি আর কংগ্রেসের ঝুলিতে এসেছিল মাত্র ১১ টি আসন। আর এবছর,এখনো পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী যে তথ্য জানা গিয়েছে,তার ভিত্তিতে কংগ্রেস ১২০ টি কাউন্সিলর পদে জয়ী হয়েছে,এগিয়ে আরো ৩০ টিতে। ১৩ টি নগরপালিকা এবং ৬ টি পঞ্চায়েত আসনেও এগিয়ে হাতপার্টি।হরিদ্বার, হলদোয়ানি-কাঠগোদাম এবং কোটদ্বার পুরনিগমের মেয়র পদ দখল করেছেন কংগ্রেস প্রার্থীরা। এ ছাড়া নৈনিতাল, আলমোড়া এবং চম্পাবত পুরসভার চেয়ারম্যানের পদেও জিতেছে রাহুল গান্ধীর দল। আর বিজেপি মোট ১৪০ টি কাউন্সিলর পদে এগিয়ে রয়েছে। কিন্তু ২০১৩ সালে ছবি অন্য ছিল। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতায় জয় হাসিল করেছিল বিজেপি। কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বেও উত্তরাখন্ডের শহরাঞ্চলের একটি মেয়র পদেও জিততে পারেনি কংগ্রেস। গোটা রাজ্য মিলিয়ে মাত্র ১২০ টি কাউন্সিলর পদ জিতেছিল তারা। আর এবারে ছবি পাল্টে গিয়েছে। বিজেপির বেহাল দশা প্রকাশ্যে এসেছে। এবারে সবথেকে খারাপ ফল করেছে উত্তর কাশী এবং মুসৌরী।

১৯’এর লোকসভা ভোটের আগে এটাকেই ‘বড় জয়’ বলে ঘোষণা করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি প্রীতম সিং। প্রসঙ্গে জানালেন, টাকা এবং প্রশাসনিক ক্ষমতাকে ব্যবহার করে যে ভোটে জেতা যায় না সেটারই প্রমাণ দিল উত্তরাখন্ডের পুর ভোট। অন্যদিকে,এই অপ্রত্যাশিত ফলাফলে তীব্র উদ্বেগে গেরুয়াশিবির। পুরভোটের আগে খোদ মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র রাওয়াত দাবি করেছিলেন, বিধানসভার তুলনায় বেশি ভাল ফল করবে বিজেপি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কিন্তু কার্যক্ষেত্রে তা হল না। বরং সেয়ানে সেয়ানে লড়াই করে বিজেপির প্রায় সমান সমান আসন পেয়ে গেল বিরোধী কংগ্রেস। প্রত্যাশার তুলনায় অনেকটাই পিছিয়ে পড়ল বিজেপি। তবে গেরুয়া শিবিরের দাবী,এই ফলাফলের কোনো প্রভাবই পড়বে না লোকসভা ভোটে। স্থানীয় ইস্যুতে পুর নির্বাচন হয়েছে,আর সেজন্যেই নির্দলরা বেশি আসন পাচ্ছেন। সাফাইতে একথা বললেও লোকসভা ভোটের আগে কংগ্রেস যে বিজেপির ভিত একটু হলেও নাড়িয়ে দিয়েছে একথা অস্বীকার করা যায় না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!