এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিধানসভার কমিটি নিয়ে একতরফা নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত স্পিকারের, ক্ষোভে ফুটছেন বিরোধীরা

বিধানসভার কমিটি নিয়ে একতরফা নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত স্পিকারের, ক্ষোভে ফুটছেন বিরোধীরা

Priyo Bandhu Media


ফের বিধানসভার 41 টি কমিটির মেয়াদ এক বছরের জন্য বৃদ্ধি করা হল।বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে এই সংক্রান্ত লিখিত নির্দেশ জারি করেন বিধানসভার সচিব। জানা গেছে,  গত 28 জুন এই নির্দেশ বেরোলেও সোমবারই সেই নির্দেশাবলীর কপি এসে পৌছোয় বিরোধীদের হাতে। কিন্তু বিরোধীদের সাথে কোনোরুপ আলোচনা না করে হঠাৎ এহেন সিদ্ধান্ত একোরফা ও অগনতান্ত্রিক বলেই মনে করছেন বিরোধী কংগ্রেস ও বাম বিধায়করা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে এই নির্দেশ নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী ও বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান সিদ্ধান্ত নেন, এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে তাঁরা বিধানসভার অধ্যক্ষকে একটি চিঠি দেবেন এবং আসন্ন শীতকালীন অধিবেশনের আগে অধ্যক্ষের ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকে তৃনমূলের বিধায়ক ও মন্ত্রীদের সামনে এ নিয়ে তাঁরা বিক্ষোভও দেখাবেন। সূত্রের খবর, রাজ্যের বিধানসভায় 26 টি দপ্তরভিত্তিক, 12 টি সাবজেক্ট কমিটি এবং পাবলিক এষ্টিমেট, পাবলিক আন্ডারটেকিং ও পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটি রয়েছে। জানা গেছে, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটিতে নির্বাচন হলেও সংসদীয় রিতী অনুযায়ী তা বিরোধীদের হাতেই থাকে। কিন্তু গতবার কংগ্রেস থেকে ঘাসফুল শিবিরে নাম লেখানো বিধায়ক মানস ভুঁইয়া এবং পরবর্তীতে শঙ্কর সিংকে এই পাবলিক অ্যাকাউন্টসের চেয়ারম্যান করা হলে বিরোধীদের বারন সত্তেও কোনো ভ্রুক্ষেপই করেনি শাসক শিবির। এমনকী কোনো কমিটিতেই বিরোধীদের মতামত না নেওয়ায় প্রবল ক্ষোভ তৈরি হয়েছে বিরোধী বিধায়কদের মধ্যে। এ প্রসঙ্গে এদিন বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান ও বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, ” এই সরকার পরিষদীয় রিতী তৈরির ক্ষেত্রেও ন্যাক্কারজনক নজির সৃষ্টি করছে। কমিটির মেয়াদ বৃদ্ধি করে ওনারা প্রমান করলেন যে তাঁরা কোনো গনতন্ত্রের ধারই ধারেন না।” সূত্রের খবর, সরকার কমিটি তৈরিতে একতরফা এই সিদ্ধান্ত নেওয়ায় পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটিতে বিরোধীরা তাদের আর কোনো বিধায়ক রাখবেন কি না সে ব্যাপারেও ইতিমধ্যেই চিন্তাভাবনা শুরু করেছেন বাম ও কংগ্রেস পরিষদীয় দল। সব মিলিয়ে বিধানসভার কমিটির মেয়াদ বিরোধীদের না জানিয়ে ফের একবছর বৃদ্ধি করায় আগামী অধিবেশনে তৃনমূলের বিরুদ্ধে যে প্রবল প্রতিবাদ দেখাবেন বিরোধী দলের সুজন-মান্নানরা সেব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত ওয়াকিবহাল

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!