এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে, বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে বড় সিদ্ধান্তের কথা জানালেন শুভেন্দু অধিকারী – জেনে নিন বিস্তারিত

দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে, বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে বড় সিদ্ধান্তের কথা জানালেন শুভেন্দু অধিকারী – জেনে নিন বিস্তারিত

রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে লোকসভা ভোটের পর বেশকিছু জেলার সংগঠনের দায়িত্ব দেওয়া হয়। যার মধ্যে মুর্শিদাবাদ জেলাটিও আছে। এবার মুর্শিদাবাদ জেলায় শুভেন্দু অধিকারী এনআরসির বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দিলেন এক জনসভা থেকে।

এদিন মুর্শিদাবাদ জেলার ভরতপুর আলিয়া হাই স্কুলের মাঠে এক জনসভায় বক্তব্য রাখেন পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। বক্তব্যের মধ্যে দিয়েই তিনি জেলা কংগ্রেসকে আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, “লোকসভা নির্বাচনের আগে জেলার কংগ্রেস নেতৃত্ব স্লোগানে বলেছিল ‘তিনে তিন’ তৃণমূল কংগ্রেসকে কবর দিন। ফল প্রকাশের পর দেখা গেল দুটি আসনের মানুষ আমাদের সমর্থন করেছেন। একটি তাঁরা পেলেও সামান্য মার্জিনে জিতেছেন। তবে সেই কেন্দ্রে গত নির্বাচনে 3 লাখ 80 হাজারে জিতলেও সেই সীমা এখন মাত্র আটাত্তর হাজারে ঠেকেছে। আগামী দিনে সেটাও আমাদের হতে চলেছে।” শুভেন্দু অধিকারী এদিন 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে 22 এ 22 টি আসনের লক্ষ্যে তৃণমূল কংগ্রেস যে এগিয়ে চলেছে সে কথা জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে শুভেন্দু বহরমপুর বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেসকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। তিনি বলেন “22 টির মধ্যে আমি 21 টির দায়িত্ব নেব। বহরমপুরের দায়িত্ব আমি নেব না। কারণ বহরমপুরে কালিদাসের বাস। তাঁরা যে ডালে বসে থাকে সেই ডাল কাটে।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে, ভরতপুরের বিধায়ক কমলেশ চ্যাটার্জীর সাথে তাঁর বাক-বিতন্ডা নিয়ে তিনি জানান, “লোকসভা নির্বাচনে ভরতপুর এলাকায় 4000 ভোট পিছিয়ে কংগ্রেস। তাই এখানকার বিধায়ককে প্রাক্তন বলেছিলাম। তাতেই রাগ হয়েছিল। আগামী নির্বাচনে আমার সেই কথার প্রমাণ মিলবে।”

এনআরসি নিয়ে এদিন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দেন মঞ্চ থেকে পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। ওই একই মঞ্চে দুই সাংসদ আবু তাহের খান খলিলুর রহমানকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

এই ঘটনায় আপাতত বিজেপি শিবির থেকে কোন মন্তব্য করা হয়নি। তবে এনআরসি নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব পরবর্তী কি পদক্ষেপ নেন এবং পশ্চিমবঙ্গ কিভাবে তার বিরোধিতা করে সেদিকেই তাকিয়ে সমগ্র রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top