এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > ভাঙড় সমস্যা নিয়ে অবশেষে বসছে রাজ্য সরকার, আসার আলো দেখছেন আন্দোলনকারীরা

ভাঙড় সমস্যা নিয়ে অবশেষে বসছে রাজ্য সরকার, আসার আলো দেখছেন আন্দোলনকারীরা

একটানা দু বছরের ও বেশি সময় ধরে ধারাবাহিক সংগ্রাম পরিস্থিতির চাপে পড়ে প্রাণঘাতী সংগ্রামে পরিণত হলেও ভাঙড়ের পাওয়ার গ্রীড বিরোধী আন্দোলন থেমে যায়নি। রাজনৈতিক মহলের বহু জল্পনা কলনার অবসানের পরে অবশেষে রাজ্য সরকারকে আলোচনায় বসতে হল। শনিবার জেলাশাসকের তরফ থেকে এই আলোচনার জন্যে কিছু সদস্য ও পঞ্চায়েত নির্বাচনের জয়ী প্রাথীদের চিঠি দিয়ে জরুরী তলব করা হয়। জানা যাচ্ছে এদিনের বৈঠকে জমি কমিটির পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন জাহানারা বিবি, ছালেয়ারা বিবি, এস্রাফিল মোল্লা, অলি মোহম্মদ, সাজারুল ইসলাম প্রমুখ সদস্যরা এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক ওযাই রত্ন কর , বারুইপুর এস পি অরিজিত সিংহ ছাড়াও পিজিসিআইএল এবং নবান্নের প্রতিনিধিরা ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

বৈঠকের শেষে জমি কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মির্জা হাসান বললেন, “আমরা দ্ব্যর্থহীন ভাবে প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছি যে, আমরা যেমন মনে করি যে আলোচনার মাধ্যমে সব সমস্যারই সমাধান সম্ভব, আমরা আলোচনার রাস্তা কখনোই বন্ধ করতে চাই না, তেমনই সরকার যদি আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধানে আন্তরিক হয়, তাহলে অবশ্যই তারা অলীক চক্রবর্তীকে মুক্তি দেওয়ার মধ্যে দিয়ে, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার,যাদেরকে বহিরাগত ‘তকমা’ দিচ্ছেন তাদেরকে নিয়ে আলোচনায বসতে হবে এবং জমি জীবিকা বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটিকে নিঃশর্ত ভাবে আলোচনায় আহ্বান করবে ” একই সাথে তিনি দাবি জানান , “এলাকায় প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র, কৃষি হিম ঘর স্থাপন, পাকাপোল টু বোয়ালঘাটা রোড বেহাল দশা সাজিয়ে উন্নয়ন করতে হবে ।”

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে প্রশাসনের তরফ থেকে বৈঠক শেষে বলা হয়েছে, “আজ গ্রামবাসীদের সঙ্গে দু ঘন্টার বেশি আলোচনা হয়েছে আমরা ওনাদের পক্ষ থেকে দাবি খতিয়ে দেখে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। তবে পাওয়ার গ্রিড হবে কি হবে না সে বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। আগামী দিনে আবারও আলোচনা বসা হবে ।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!