এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ভাঙড়ে শুরু খেল? নিহতের স্ত্রী জানিয়ে দিলেন আরাবুল জড়িত নন

ভাঙড়ে শুরু খেল? নিহতের স্ত্রী জানিয়ে দিলেন আরাবুল জড়িত নন

নজিরবিহীনভাবেই এদিন বারুইপুর আদালতে ভাঙড়ের নহত নির্দল সমর্থক হাফিজুল রহমান মোল্লার  স্ত্রী সাবিরা বিবি তাঁর স্বামীর খুনের ঘটনায় আরাবুল ইসলাম কে নির্দোষ জানিয়ে হলফনামা জমা দিলেন । সাবিরা বিবি কোনো চাপের মুখে এহেন আচরন করছেন কি না আদালতের অতিরিক্ত জেলা দায়রা বিচারক তা খতিয়ে দেখে  তদন্তকারী অফিসারকে সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট পেশ করার নির্দেশ দিলেন। উল্লেখ্য গত ১১ ই মে ভাঙড়ের নতুনহাটে পঞ্চায়েত ভোটের প্রচারে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় মাছিভাঙা গ্রামের বাসিন্দা হাফিজুল রহমানের। এদিনের খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত সন্দেহে এলাকার স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা আরাবুল ইসলাম তাঁর ছেলে হাকিবুল, ভাই আজিজুর ইসলাম-সহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে কাশীপুর থানায় এফআইআর হয়। জানা যাচ্ছে  অভিযোগকারী ওলিল মোল্লা হাফিজুলের প্রতিবেশী।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

পঞ্চায়েত নির্বাচনে নিহত নির্দল প্রার্থী হাফিজুল রহমানএর স্ত্রী সাবিরার বারুইপুর আদালতে পেশ করা হলফনামা প্রসঙ্গে কার্যতই হতবাক হয়ে ওলিল বললেন, ” ১১মে আমি হাফিজুলের পাশে ছিলাম। ঘটনাস্থলে হাকিমুল, আরাবুল, আজিজুলরা ছিল। সাবিরা তখন বাপের বাড়িতে ছিলেন। আমরাই ওঁকে খুনের কথা জানাই। ঘটনার সময় কে কে ছিল সাবিরা জানবেন কী করে?” পাশাপাশি তিনি ঐ খুনের ঘটনায় ধরা না পড়া অভিযুক্ত ১২ জন সাবিরা বিবিকে হুমকি দিয়ে হলফনামা লেখাতে পারে বলেও সন্দেহ প্রকাশ করলেন। এই প্রসঙ্গে নিহত হাফিজুলের দাদা আইজুল মোল্লা বললেন, ”খুনের ঘটনার সময় সাবিরা মাছিভাঙায় ছিলেন না। পরে এসেছিলেন। তিনি খুনের বিষয়ে কিছুই জানেন না। কী করে হলফনামা দিলেন, জানি না।”  এদিকে জমি রক্ষা কমিটির দাবি অনুসারে পুলিশ এবং তৃণমূল কংগ্রেস সাবিরা বিবিকে বলপ্রয়োগ করে হলফনামা লিখতে বাধ্য করেছেন। যদিও বারুইপুর জেলা পুলিশ সুপার অরিজিত্‍ সিংহ এই অভিযোগ নাকচ করে বললেন, ”হলফনামা নিয়ে পুলিশের কোনও ভূমিকা নেই। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ঘটনার তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দেওয়া হবে।” ভাঙড়ের তৃণমূল বিধায়ক আব্দুর রেজ্জাক মোল্লা বিক্ষুদ্ধ জনগনকে আশ্বস্ত করে বললেন, ”আইন মোতাবেক তদন্ত হোক।”

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!