এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > ভাগাড়-কাণ্ডের পর এবার “মরা-মুরগি-কান্ড” নিয়ে উত্তাল হতে চলেছে বাংলা?

ভাগাড়-কাণ্ডের পর এবার “মরা-মুরগি-কান্ড” নিয়ে উত্তাল হতে চলেছে বাংলা?

কিছুদিন আগেই ভাগাড়ের মাংস বিক্রি কাণ্ডে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছিল বাংলায়। যে ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন হোটেল, বাজারে গিয়ে নজরদারিও শুরু করা হয়েছিল। আর এবার সেই ভাগাড় কাণ্ডের পর বুধবার বাঁকুড়ার ধাদকায় একটি বাইকে মৃত মুরগি বহনকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল। আর যে ঘটনায় সেই বাইক আরোহীকে আটকে প্রবল বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন গ্রামবাসীরা।

তাদের দাবি, স্থানীয় একটি হ্যাচারি থেকে এই মরা মুরগি পাচার করা হচ্ছিল। তাই তারা সেই ব্যক্তিকে আটকেছেন। জানা যায়, এদিন সেই হ্যাচারি থেকে দশটিরও বেশি মুরগি ব্যাগে ভরে নিয়ে যাচ্ছিলেন সেই বাইক চালক। আর তা নজরে আসার পরই পথে তাকে আটকে দিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন গ্রামবাসীরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে এই বিক্ষোভের খবর পেয়ে হ্যাচারির এক কর্মী ঘটনাস্থলে গেলে তাকে ঘিরেও প্রবল বিক্ষোভ সংগঠিত হয়। এদিকে এই গোটা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশের পক্ষ থেকে দুজনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এদিন এই প্রসঙ্গে সদর থানার আইসি সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, “বাইক চালক বাড়িতে খাওয়ার জন্য দুটি মৃত্যু মুরগি নিয়ে যাচ্ছিলেন। তখন তাকে আটকে গ্রামবাসীরা বিক্ষোভ দেখায়। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুজনকে উদ্ধার করেছি। বিক্ষোভের পেছনে অন্য কোনো কারণ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছি।”

অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে স্থানীয় বাসিন্দা উত্তম ঘোষ গনেশ চৌধুরীরা বলেন, “এই হ্যাচারি থেকে প্রায় প্রতিদিনই মরা মুরগি পাচার করা হয়। এদিনও তা করা হচ্ছিল। আমরা রাস্তায় আটকে বিক্ষোভ দেখিয়েছি। এভাবে মৃত মুরগি বিক্রি অবিলম্বে বন্ধ করার দাবিও আমরা পুলিশের কাছে জানিয়েছি।” সব মিলিয়ে এবার ভাগাড় কাণ্ডের পর মরা মুরগি কাণ্ড নিয়ে ফের অশনি সংকেত দেখা দিল বাকুড়ায়।

রাজনৈতিক মহলের দাবি রাজ্যে নির্বাচন চলছে আর এই বিষয়টি বড় ইস্যু করতে পারে বিরোধীরা। আর তাই নিয়ে উত্তাল হতে পারে রাজ্য।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!