এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাস্তায় আলো লাগানো নিয়ে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রণক্ষেত্র ভবানীপুর! পড়ছে মুড়ি-মুড়কির মত বোমা!

রাস্তায় আলো লাগানো নিয়ে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রণক্ষেত্র ভবানীপুর! পড়ছে মুড়ি-মুড়কির মত বোমা!

 

দলীয় স্তরে বারবার শৃংখলার বার্তা দিয়েও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। ফের তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে এবার রণক্ষেত্র হয়ে উঠল হাসনাবাদের পার ভবানীপুর এলাকা। রাস্তায় ইলেকট্রিক পোলে আলো লাগানোকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে এদিন প্রবল চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছে যায় যে, গুলি থেকে শুরু করে বোমা পর্যন্ত পড়তে দেখা যায়। বস্তুত, হাসনাবাদের মাখালগাছা গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূলের দখলে রয়েছে। কিন্তু এই পঞ্চায়েতের পার ভবানীপুর গ্রামের শাসকদলের গোষ্ঠী কোন্দল কারো অজানা নয়।

সম্প্রতি এই গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে বেতনি নদীর পাড় থেকে পাটকেলপোতা পর্যন্ত রাস্তার দুই দিকে আলো লাগানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে লাইটের সংখ্যা কম থাকায় একটি পোস্ট ছেড়ে আরেকটি পোস্টে লাইট লাগানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত মঙ্গলবার সকালে ঠিকাদার এলাকায় লাইট লাগাতে এলেই ব্যাপক ঝামেলা সৃষ্টি হয়। কোন পোস্টে সেই লাইট লাগানো হবে, তা নিয়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে প্রবল বচসা বাধে। অভিযোগ, পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছে যায় যে পঞ্চায়েত সদস্যের গোষ্ঠীর দিকে বেশি লোকজন থাকায় তারা অপর গোষ্ঠীর সদস্যদের ব্যাপক মারধর করেছে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

পাশাপাশি দুই পক্ষের তরফেই ইটবৃষ্টি এবং বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। কেন এভাবে প্রকাশ্যে গুলি চালনার মত ঘটনা ঘটল, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে বিভিন্ন মহলে। এদিকে তৃণমূলের এই গোষ্ঠী সংঘর্ষে গুলি এবং বোমার আঘাতে ইতিমধ্যেই এক মহিলা সহ 6 জন ব্যক্তি হয়েছে বলে খবর। পরবর্তীতে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিন এই প্রসঙ্গে হাসনাবাদ ব্লক তৃণমূল সভাপতি ইস্কিন্দর গাজী বলেন, “পার হাসনাবাদ গ্রামের ইলেকট্রিক পোস্টে ল্যাম্প লাগানোকে কেন্দ্র করে ঝামেলা হয়েছে। আমরা পুলিশকে আইনমাফিক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছি। দলের আভ্যন্তরীণ গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নাকি পাড়ার ঝামেলা, তা খোঁজ নিয়ে মতামত দেব।” সব মিলিয়ে রাস্তায় আলো লাগানো নিয়ে যেভাবে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রত্যক্ষ করল ভবানীপুর, তাতে শাসক দলের শৃঙ্খলা নিয়ে যেমন প্রশ্ন উঠছে, ঠিক তেমনই এলাকার শান্তিশৃঙ্খলা বিঘ্নিত হওয়া নিয়েও নানা মহলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!