এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > বাংলা আমাদের মাতৃভাষা, কেন চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে উর্দু, নতুন করে উত্তেজনা শুরু ইসলামপুরে

বাংলা আমাদের মাতৃভাষা, কেন চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে উর্দু, নতুন করে উত্তেজনা শুরু ইসলামপুরে

প্রথমে ছিল গুলিচালনা করা হল কেন! আর এবার দুই ছাত্রের মৃত্যুর পরে সেই দাবি থেকে সরে গিয়ে এখন উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুরের দাঁড়িভিট গ্রামের বাসিন্দাদের একটাই প্রশ্ন, “বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। তাহলে কেন জোর করে চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে উর্দু?” প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে রনক্ষেত্রের চেহারা নেয় এসলামপুরের দাঁড়িভিট উচ্চবিদ্যালয়।

পরিস্থিতিকে শান্ত করতে পুলিশ আসলে উল্টে অশান্তি আরও বাড়তে শুরু করে। গুলিবিদ্ধ হন এই গ্রামের দুই ছাত্র। আর এরপর থেকেই থমথমে চেহারা গোটা গ্রামে। পুলিশের বিরুদ্ধে গুলিচালনার অভিযোগ তুলে গতকাল রাজ্যজুড়ে ছাত্র ধর্মঘটের ডাক দেয় সিপিএমের ছাত্র সংগঠন এসএফআই।

অন্যদিকে পথে নামে কংগ্রেসের ছাত্র পরিষদ এবং বিজেপির ছাত্র সংগঠন এবিভিপিও। দাবি ওঠে শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগের। এদিকে শনিবার দুই ছাত্রের কফিনবন্দি মৃতদেহ মাটিতে পুতে রেখে সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব হয় গোটা গ্রাম। এদিন মৃত দুই ছাত্রের পরিবারের সাথে দেখা করতে আসেন বাম প্রতিনিধি দলের সুজন চক্রবর্তী অশোক ভট্টাচার্যরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাঁরাও এই ব্যাপারে বিচারবিভাগীয় তদন্তের দাবি তোলেন। আর এরপর সেই বাম নেতারা ফিরে যাওয়ার সাথে সাথেই রাস্তায় বসে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন এই গ্রামের বাসিন্দারা। পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনাস্থা দেখিয়ে সিবিআই তদন্তের দাবি জানানোর পাশাপাশি ইসলামপুর থানাও ঘেরাও করে রাখেন তাঁরা। তাঁদের দাবি, বাংলা আমাদের ভাষা, তাহলে কেন সেখানে উর্দু পড়ানো হবে! পাশাপাশি গ্রামের দুই ছাত্রের মৃত্যুতে কারি দায়ী তার বিচারের দাবিও জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা। সব মিলিয়ে বাম নেতারা যাওয়ার পরেই এবার দুমুখী আন্দোলনে ইসলামপুরের দাঁড়িভিট গ্রাম।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!