এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বাংলায় রথযাত্রার সময়েই ‘মোদী-এফেক্ট’ শুরু করার বিশেষ পরিকল্পনায় গেরুয়া শিবির

বাংলায় রথযাত্রার সময়েই ‘মোদী-এফেক্ট’ শুরু করার বিশেষ পরিকল্পনায় গেরুয়া শিবির

ডিসেম্বর মাস পড়লেই শুরু হয়ে যাচ্ছে বিজেপি রথযাত্রা।সেই রথযাত্রায় সাফল্য পেতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দিয়ে রাজ্যে ছাত্রসভা করানোর পরিকল্পনা নিলেও বিজেপ। রথের রশিতে টান পড়ার পরেই রথযাত্রা চলাকালীন শিলিগুড়ি কিংবা জলপাইগুড়ি, দুর্গাপুর বা আসানসোল, মালদহ এবং কৃষ্ণনগর মিলিয়ে মোট চারটি সভা করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “পার্টির তরফে মোদির সভা করার জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। ৭ ডিসেম্বর কোচবিহার থেকে রথযাত্রার সূচনা করছেন অমিত শাহ। ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে রথযাত্রা চলাকালীন মোদির সভাগুলি হবে। সভার প্রাথমিক সম্মতি দিয়েছেন মোদি। একমাস ধরে রথযাত্রা চলাকালীন প্রতি সপ্তাহে একটি করে সভা করতে চান প্রধানমন্ত্রী।‌”
আজ সকালে মোদির সভার বিষয়টি ঠিক হওয়ার পরে এ খবর নিশ্চিত করেন দিলীপ ঘোষ।

রাজ্য বিজেপি আশা করছে রথযাত্রা চলাকালীন প্রধানমন্ত্রী সভা করলে একদিকে যেমন সেখানে জনসমাগম বাড়বে অন্যদিকে সেই সঙ্গে বাড়বে সাংগঠনিক ক্ষমতাও। যদিও বিজেপির এই দাবিকে গুরুত্ব দিতে নারাজ ঘাসফুল শিবির। এই প্রসঙ্গে, রাজ্যের মন্ত্রী তথা কলকাতার হবু মেয়র ফিরহাদ হাকিমের দাবি, “মোদির জনসভা বঙ্গে কোনও প্রভাবই ফেলতে পারবে না।পশ্চিমবঙ্গের মাটি এত শক্ত যে পাঁচটা কেন ৫০০টা সভা করেও নরেন্দ্র মোদী এখানে সুবিধা করতে পারবেন না।”

অন্যদিকে, রথযাত্রা কর্মসূচি নিয়ে রাজ্য প্রশাসন কোনওরকম সহযোগিতা করছে না বলে দাবি করছে বিজেপি। ব্যবসার অনুমতি চেয়ে চিঠি দেওয়া সত্ত্বেও নবান্ন কোনো উত্তর দেয়নি। এই বিষয়কে সামনে রেখে
রাজ্যপালকে নালিশ জানাল বিজেপি নেতৃত্ব। রাহুল সিনহা, দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়-সহ রাজ্য বিজেপির এক প্রতিনিধি দল সোমবার বিকেলে রাজ্যপালের সঙ্গে টাকা করে এই অভিযোগ জানায়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

 

রাহুল সিনহা বলেন, “রাজ্য সরকার চিঠির উত্তর দিক বা না দিক, রথযাত্রা হবে। প্রয়োজনে আমরা আইনের দ্বারস্থ হব। যাত্রা বেরোবে। আরও রক্ত যদি বিজেপি কর্মীদের ঝরে ঝরবে।” রাহুলের দাবি, রাজ্যপাল এ বিষয়ে প্রশাসনের উপযুক্ত আধিকারিকের সঙ্গে কথা বলার আশ্বাস দিয়েছেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!