এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলায় এনআরসি নিয়ে কি ভাবছে কেন্দ্র, সিদ্ধান্ত জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

বাংলায় এনআরসি নিয়ে কি ভাবছে কেন্দ্র, সিদ্ধান্ত জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

প্রথম থেকেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক ইস্যুতে তোপ দেগে আসছিলেন তৃনমূল সুপ্রিমো তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ক্ষোভের আগুনে ঘি পড়েছে তখনই, যখন সম্প্রতি অসমে জাতীয় নাগরিকপঞ্জির নাম করে 40 লক্ষ মানুষের নাম সেখান থেকে বাদ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

আর অসমের এই মানুষদের সেখানে ঠাঁই দেওয়া না হলে বাংলা তাদের আশ্রয় দেবে বলে পাল্টা বিজেপিকে কটাক্ষ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর যাকে ঘিরে প্রবল চাপে পড়ে বিজেপিও। এদিকে অসমের পাশাপাশি ক্ষমতায় এলে এই বাংলাতেও এনআরসি করা হবে বলে পাল্টা হুশিয়ারি দিতে থাকেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। যে ঘটনাকে ঘিরে ক্রমশ রাজ্য রাজনীতির পারদ চড়তে শুরু করে।

তবে বিজেপি যাই বলুক না কেন বাংলা যে সবার আশ্রয়স্থল তা ফের স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দেওয়া হয় তৃণমূলের তরফে। এমনকি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থাকতে এই বাংলা থেকে কাউকে বিতাড়িত করা যাবে না বলেও জানিয়ে দেয় রাজ্যের শাসকদল। এদিকে এই এনআরসি নিয়ে ক্রমশ তিক্ত সম্পর্ক হতে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বনাম মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।যার প্রভাব এসে পড়ে বঙ্গ রাজনীতিতেও।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

কিন্তু এবারে সেই এনআরসি অসমের বাইরে অন্যান্য রাজ্যে প্রয়োগ করা হবে কিনা তা নিয়ে নিজেদের মত স্পষ্ট করল কেন্দ্রীয় সরকার। সূত্রের খবর, তৃণমূল সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের এক প্রশ্নের জবাবে সংসদে লিখিত আকারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হংসরাজ আহির জানিয়েছেন যে, আপাতত অসমের বাইরে আর কোথাও এনআরসি প্রয়োগের পরিকল্পনা নেই তাঁদের।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে যাতে বিরোধীরা আর কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে এনআরসির নাম করে দেশ থেকে সাধারণ মানুষকে বিতাড়িত করা হচ্ছে – এই অভিযোগ তুলতে না পারে সেই জন্যই এদিন তৃণমূল সাংসদের প্রশ্নের উত্তরে এনআরসি নিয়ে নিজেদের মত স্পষ্ট করল কেন্দ্র।

এদিকে আন্তর্জাতিক উদ্বাস্তু দিবস উপলক্ষে এদিন সকালেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটে লেখেন, “সবাইকে আশ্রয় দিতে তৈরি এই বাংলা।” আর সেই উদ্বাস্তু দিবসের দিনই বিরোধীরা যাতে এই এনআরসি ইস্যুটিকে নিয়ে আর বেশি জাতীয় রাজনীতিকে‌‌ তোলপাড় করতে না পারে সে জন্য আগেভাগেই অসমের বাইরে আর কোথাও আপাতত এই এনআরসি হবে না বলে কিছুটা হলেও ড্যামেজ দেওয়ার চেষ্টা করল কেন্দ্র।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!