এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলা নিয়ে কথা বলতে মুখ্যমন্ত্রীকে দিল্লিতে বৈঠকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলা নিয়ে কথা বলতে মুখ্যমন্ত্রীকে দিল্লিতে বৈঠকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

লোকসভা নির্বাচনের পর বাংলায় ঘটে চলা লাগাতার সন্ত্রাসের পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপে বারেবারেই আপত্তি জানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর রবিবার দিল্লিতে সর্বদলীয় বৈঠকে বাংলায় যাতে কেন্দ্র কোনোরূপ হস্তক্ষেপ না করে তার আর্জি জানান সংসদের দুই কক্ষের তৃণমূল নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডেরেক ও’ব্রায়েন। তবে তারা যখন এই দাবি তুলছেন, তখন সেখানে উপস্থিত ছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এবং সংসদীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী।

আর প্রধানমন্ত্রীকে তারা তাদের দাবি না জানাতে পাড়ায় পরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বৈঠক থেকে বেরিয়ে যখন গাড়িতে উঠতে যান, তখন তার সাথেই হাঁটতে হাঁটতে সমস্ত কথা তাকে জানান তৃণমূলের সংসদীয় নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, এদিন কলকাতা উত্তর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে প্রথমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জিজ্ঞাসা করেন, তার শরীর ঠিক আছে কিনা! প্রত্যুত্তরে সুদীপবাবু বলেন, “হ্যাঁ, শরীর ঠিক আছে।” আর এরপরই বাংলাকে নিশানা করে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় হস্তক্ষেপ যাতে না করা হয়, তার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্জি জানান সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে তৃণমূল সাংসদের মুখ থেকে এই কথা শোনার পরে আগামী 19 জুন বেলা তিনটার সময় তিনি সব দলের সভাপতিকে নিয়ে দিল্লিতে বৈঠক করবেন, সেখানেই যাতে এই কথা জানানো হয় তা জানিয়ে দেন নরেন্দ্র মোদি। ইতিমধ্যেই এই বৈঠকের ব্যাপারে কেন্দ্রের সংসদীয় মন্ত্রীর তরফে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তবে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকা এই সর্বদলীয় বৈঠকে উপস্থিত হবেন কি না তা নিয়ে জল্পনা রয়েই গেছে। এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের এক প্রথম সারির নেতা বলেন, “সর্বদল বৈঠকের দায়িত্ব ছিল সুদীপদার উপরে। তিনিই যা বলার বলেছেন। তবে মুখ্যমন্ত্রী যাবেন কিনা তা তিনিই ঠিক করবেন। এই সপ্তাহে তার পূর্ব নির্ধারিত কিছু কর্মসূচি রয়েছে।”

কিন্তু অতীতে মোদির শপথগ্রহণ থেকে নীতি আয়োগের বৈঠকে আমন্ত্রণ পেয়েও যেভাবে তা এড়িয়ে গেছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তাতে আগামী 19 জুনের সর্বদলীয় বৈঠকে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও এখন তিনি উপস্থিত হয়ে তার দাবিদাওয়া কেন্দ্রের কাছে রাখেন কিনা, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!