এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলায় সরকার গড়লে কোন পথে প্রশাসন-উন্নয়ন? এখন থেকেই রুপরেখা তৈরির জন্য পদক্ষেপ বিজেপির

বাংলায় সরকার গড়লে কোন পথে প্রশাসন-উন্নয়ন? এখন থেকেই রুপরেখা তৈরির জন্য পদক্ষেপ বিজেপির

Priyo Bandhu Media

2017 সালে রাজ্যে যেভাবে ভারতীয় জনতা পার্টির উত্থান ঘটেছে, যেভাবে দুটি আসন থেকে 16 টি আসন বাড়িয়ে নিয়ে শাসক দলের ঘাড়ে রীতিমত নিঃশ্বাস পেয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি, সেই পরিস্থিতিতে বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বরা অনেক আগেই 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনে নিজেদের জয়যুক্ত হওয়ার স্বপ্ন দেখে ফেলেছেন।

শুধু বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব নয়, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিজের সভা থেকে বারবার দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলেছেন, 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে সরকার গড়তে চলেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। স্বাভাবিকভাবেই বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসলে রাজ্য শাসনের ক্ষেত্রে তাদের রূপরেখা কি হবে!

এই নিয়ে অনেকের মনেই দানা বাধতে শুরু করেছিল নানান প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলের মধ্যে। বরাবরই ভারতীয় জনতা পার্টি “পার্টি উইথ ডিফারেন্স” নামে খ্যাত। কাজেই তাদের শাসনতন্ত্র কি রকমের হবে, সেই বিষয়ে প্রশ্ন নেই রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের অন্দরে। আর এইবার 2021 সালে বাংলায় ক্ষমতায় এলে ভিন্নরকমের প্রশাসন উপহার দেবে ভারতীয় জনতা পার্টির বলে জানিয়ে দিল বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। তাদের কথায়, ভারতীয় জনতা পার্টি এমন সরকার গঠন করবে, যা বাংলায় কংগ্রেস-তৃণমূল জমানায় দেখেনি বঙ্গবাসী।

জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই নিজেদের সরকার গঠনের লক্ষ্যে প্ল্যান গঠন করে পথ চলতে শুরু করে দিয়েছে রাজ্যের পদ্মফুল শিবির। রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্য অনুযায়ী, রাজ্যের বিরোধী দল হিসেবে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে দৈনন্দিন লড়াই আন্দোলন সংক্রান্ত বিষয়ে আমরা আগাম প্রস্তুতি হিসাবে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা করে থাকি। এই ক্ষেত্রে তিনি বলেন, “এই পরিকল্পনাগুলোকে আমরা প্ল্যান-এ বলে থাকি। কিন্তু গত দু’বছরে বিজেপি রাজ্যের প্রধান বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করেছে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে শুরু করে বিধানসভা উপনির্বাচন এবং লোকসভা নির্বাচনে সাধারণ মানুষ বিজেপি প্রার্থীদের উপর আস্থা রেখেছে। তাই আমাদের দায়িত্ব বেড়ে গেছে। আর এর পরেই আত্মবিশ্বাসীর স্বরে দিলীপ ঘোষ জানান, 2021 সালের বিধানসভা ভোটে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে জিতে এলে আমরা পশ্চিমবঙ্গে ভিন্ন প্রশাসন উপহার দিব এবং সেই লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিশিষ্ট মানুষদের কাছ থেকে পরামর্শ নেওয়া শুরু হয়ে গেছে।

রাজ্যের প্রশাসনের অন্দরে ঘুন ধরে গেছে বলে মত প্রকাশ করেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ তথা বঙ্গ বিজেপি রাজ্য সভাপতি। তিনি আরও বলেন, “রাজ্য সরকার নীতি পঙ্গুত্বে ভুগছে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে উন্নত প্রশাসন রাজ্যবাসীকে উপহার দেওয়া হবে।” তবে শুধু বিজেপি রাজ্য সভাপতির কথাতেই নয়, বিশেষ সূত্র মারফত পাওয়া খবর অনুযায়ী, 2021 সালে নিজেদের জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী ভারতীয় জনতা পার্টি ইতিমধ্যেই প্রাক্তন আইএএস, আইপিএস অফিসার থেকে শুরু করে বিজ্ঞানী গবেষক সহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের পৃথিবীদের কাছ থেকে রাজ্যের প্রশাসনিক এবং পরিকাঠামো ত্রুটিকে কি করে দূর করে দেওয়া যায়, সেই পরামর্শ নিতে শুরু করেছেন। সেই অনুযায়ী তৈরি হচ্ছে ব্লু প্রিন্ট।

আর এই তালিকায় রয়েছে কৃষি থেকে শুরু করে শিল্প উৎপাদন, পুলিশ প্রশাসন, আবাসন, পরিবেশ, উদ্বাস্তু সমস্যা সহ একাধিক কর্মসূচি। আবার ভারতবর্ষের অন্যান্য রাজ্যগুলির তুলনায় কোন কোন ক্ষেত্রে বাংলা কতটা পিছিয়ে পড়েছে এবং কোন প্রক্রিয়ায় কাজ করলে সেসব ক্ষেত্রে রাজ্যকে এগিয়ে নেওয়া সম্ভব হবে, তা নিয়েও তৈরি হচ্ছে পরিকল্পনা। এই বিষয়ে বলতে গিয়ে বিজেপির একজন বিশিষ্ট নেতা জানান, শুধু ক্ষমতা দখলই নয়, সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলে তাদের দৈনন্দিন জীবনের অভিজ্ঞতা কি কি অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে, সেই সমস্ত উপলব্ধিকে কাজে লাগাতে চায় ভারতীয় জনতা পার্টি।

দলের কেন্দ্রীয় নীতি অনুযায়ী ইতিমধ্যেই এলাকায় এলাকায় বিজেপি এমপি থেকে শুরু করে এমএলএরা ছোট ছোট চা চক্রের মধ্যে দিয়ে মানুষের সঙ্গে আলোচনা শুরু করে দিয়েছে। এলাকা উন্নয়ন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে সাধারণ মানুষের মতামত জানার জন্য নতুন ফর্ম ছাপাতে শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর এই ফর্মের মাধ্যমে সাধারণ মানুষ তাদের দৈনন্দিন জীবনের অভিজ্ঞতাকে লিখিতভাবে বিজেপি নেতাদের হাতে তুলে দিতে পারবে।

রাজনৈতিক মহল মনে করছেন, সরকারে আসার আগেই রাজ্যের প্রশাসনিক স্তরে উন্নতির জন্য এবং রাজ্যের মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপনের ত্রুটি-বিচ্যুতিগুলোকে জেনে নিতে ভারতীয় জনতা পার্টির যে কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন, রাজনৈতিক ক্ষেত্রে তা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। এগুলোর মাধ্যমেই বোঝা যাচ্ছে নিজেদের জয়ের ব্যাপারে কতটা আত্মপ্রত্যয়ী গেরুয়া শিবির।

তাই 2021 সালের নির্বাচন বঙ্গবাসীর কাছে একটি গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন হতে চলেছে, সেই বিষয়ে সংশয় নেই রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মনে। কিন্তু আগের থেকে ব্লু প্রিন্ট তৈরি করলেও জনতার রায় ভারতীয় জনতা পার্টির পক্ষে যায় কিনা বা 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যের ক্ষমতাসীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেসকে ভারতীয় জনতা পার্টি টক্কর দিতে পারে কিনা! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!