এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নতুন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির নাম ঘোষণা কি হচ্ছে এই সপ্তাহেই ?কে হচ্ছেন সভাপতি ?

নতুন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির নাম ঘোষণা কি হচ্ছে এই সপ্তাহেই ?কে হচ্ছেন সভাপতি ?

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে রাজ্য এবং দলের অভ্যন্তরে জাতীয় কংগ্রেসের অবস্থা দিনদিন যে রকম হচ্ছে তাতে রাজ্যে কংগ্রেসের দলের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্যে যোগ্য নেতৃত্বের প্রয়োজন হয়ে পড়েছে। সূত্রের খবর অনুসারে তাই এবার আর অধীর চৌধুরী নন, জুন মাসের শেষ সপ্তাহের মধ্যেই নতুন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির নাম ঘোষণা করা হতে পারে। আর সব কিছু ঠিক থাকলে হয়ত রাজ্যের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির পদে দেখা যাবে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের পুত্র অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়-কে । জানা যাচ্ছে রাজ্যে দলীয় সভাপতি বদলের ভাবনা অনেক থাকলেও রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচন এবং তার অল্প দিন পরেই পবিত্র রমজান মাস পালন সব মিলিয়ে সভাপতির নাম ঘোষণার প্রক্রিয়াটি স্থগিত রাখা হয়েছিলো।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিকে আবার সোমবার এআইসিসির নতুন ইনচার্চ গৌরব গগৈ রাজ্যের দলে সদর কার্যালয় বিধানভবনে আসেন। জানা যাচ্ছে এই যুবা নেতার কাছে কয়েকটি জেলার কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকরা অধীর চৌধুরীকে সভাপতির পদ থেকে অপসারণের দাবি করেন। বিধানভবন সূত্রের খবর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদের দাবিদার ছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য, জঙ্গিপুরের সাংসদ অভিজিত্‍ মুখোপাধ্যায় ও প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র প্রমুখ। এই তিন জনের মধ্যে থেকে সোমেন মিত্র’র সমর্থনে দলের অভ্যন্তরে একটা বড় অংশ মদত দিয়েছিলেন । এদিকে যাঁকে নিয়ে এত জল্পনা কল্পনা সেই অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়কে তাঁর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির পদ গ্রহণের সম্ভবনার কথা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি স্পষ্ট ভাষায় জবাব দিলেন যে, “আমি এবিষয়ে কোনও মন্তব্য করব না।”

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে

যদিও দলের একাংশের মতে রাজনীতিতে অভিজিৎবাবুর জনযংযোগ খুবই নগণ্য। দলীয় বৈঠকেও তিনি খুব একটা সক্রিয় নন। দলের অন্য নেতাদের হয়ে নির্বাচনী প্রচারকার্যেও তাঁকে দেখা যায়না বললেই চলে। কিন্তু সম্প্রতি মছলন্দপুরে একটি জনসভায় তিনি প্রধান অতিথি ছিলেন। হঠাৎই দলে অভিজিৎবাবুর সক্রিয়তা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণেই প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদের দাবিদার হিসেবে তাঁর নাম জোরালো হয়ে উঠেছে। সোমবার বিধানভবনে দলীয় বৈঠকে অংশ গ্রহণ করার জন্যে উপস্থিত হয়েছিলেন অভিজিৎবাবু। সাংবাদিকেরা সেখানে তাঁকে প্রশ্ন করতে গেলে তিনি বললেন , “যা কথা হবে একসপ্তাহ পর।” প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি পুত্রের এই এক সপ্তাহ সময় নেওয়াকে কেন্দ্র করে নতুন জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!