এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলার উপনির্বাচনের ফল নিয়ে মুখ খুললেন মুকুল রায়, প্রায় মিলে গেল প্রিয় বন্ধুর সমীক্ষার সঙ্গে

বাংলার উপনির্বাচনের ফল নিয়ে মুখ খুললেন মুকুল রায়, প্রায় মিলে গেল প্রিয় বন্ধুর সমীক্ষার সঙ্গে

গত ২৫ তারিখ বাংলার ৩ আসন কালিয়াগঞ্জ, করিমপুর ও খড়্গপুর-সদরে হয়ে গেল উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ। ফলাফল আগামীকাল – কিন্তু তার আগে এই ৩ আসনের ফলাফল নিয়ে বিভিন্ন মহলে জল্পনা অব্যাহত। কেননা ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের হিসাবে এই ৩ টি আসন যথাক্রমে – কংগ্রেস, তৃণমূল ও বিজেপির দখলে ছিল। আবার ২০১৯ এর হিসাব ধরলে – কালিয়াগঞ্জ ও খড়্গপুরে বিপুল ভোটে এগিয়ে ছিল বিজেপি।

অন্যদিকে, রাজ্যজুড়ে গেরুয়া ঝড়ের মাঝেও করিমপুর আসনে তৃণমূল এগিয়ে ছিল প্রায় ১৪ হাজার ভোটে। আমরা নির্বাচনের আগে – এই ৩ আসনের সাম্ভাব্য ফল নিয়ে দুবার আমাদের সমীক্ষা প্রকাশ করি। অন্যদিকে, ভোটগ্রহণের শেষে – আমরা আপনাদের সামনে ইতিমধ্যেই নিয়ে এসেছি আমাদের এক্সিট পোল। তা বাস্তবের কত কাছাকাছি – তা স্পষ্ট হবে আগামীকাল।

কিন্তু, তার আগে বিজেপির অন্যতম ভোট ম্যানেজার – এই ৩ আসন নিয়ে যে গেরুয়া শিবিরের হিসেব পেশ করলেন – তা যেন কোথাও গিয়ে মান্যতা দিল প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার করা এক্সিট পোলকেই। প্রথমেই জানাই আমাদের সমীক্ষা অনুযায়ী, এই ৩ কেন্দ্রেই তৃণমূল বা বাম-কংগ্রেসকে মাত দিয়ে জয়ী হতে চলেছে বিজেপি। মুকুলবাবুও দাবি করেছেন – তাঁরা উপনির্বাচনে ৩-০ ফলেই জিততে চলেছেন।

এর পাশাপাশিই কালিয়াগঞ্জে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ৫৬ হাজার ভোটে এগিয়ে থাকলেও, আমাদের সমীক্ষা অনুযায়ী এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী কমলচন্দ্র সরকার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেসের তপনদেব সিংহকে ৩০,০০০ – ৩৫,০০০ পরাজিত করতে পারেন। বিজেপির তরফে মুকুলবাবুও দাবি করেছেন – এই কেন্দ্রে বিজেপির জয় নিশ্চিত। আর ব্যবধান হতে চলেছে ৩০ হাজারের কাছাকাছি ভোট।

আমাদের করা সমীক্ষা অনুযায়ী, তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে থাকা করিমপুর কেন্দ্রেও এবার ফুটতে চলেছে পদ্ম। বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদার তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বিমলেন্দু সিংহ রায়কে ৫,০০০ – ১০,০০০ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করতে পারেন। মুকুলবাবুও জানিয়েছেন এই করিমপুর আসনটি বিজেপি ৮ থেকে ১০ হাজার ভোটের ব্যবধানে জিততে চলেছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার করা এক্সিট পোল অনুযায়ী, বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ছেড়ে যাওয়া খড়্গপুর-সদর আসনে বিজেপির মার্জিন কমলেও, আসনটি ধরে রাখছে গেরুয়া শিবির। বিজেপির প্রেমচাঁদ ঝা নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেসের প্রদীপ সরকারকে ১০,০০০ – ১৫,০০০ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করতে পারে। এই আসনে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির ৪৫ হাজারের লিড থাকলেও, মুকুলবাবুর দাবি এই আসনটি বিজেপি ২০ হাজারের কাছাকাছি ভোটের ব্যবধানে জিততে চলেছে।

আসল ফলাফল কি হবে, অবশ্যই ভাবে তা সামনে আসবে আগামীকাল – ইভিএম বাক্স খোলা হলে। কিন্তু, বঙ্গ-রাজনীতির অন্যতম সেরা ‘ট্যাকটিশিয়ান’ মুকুল রায়ের নিজস্ব হিসাব বা বিজেপির আভ্যন্তরীন সমীক্ষার সঙ্গে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার এক্সিট পোল প্রায় হুবহু মিলে যাওয়ায় – স্বাভাবিকভাবেই তা আমাদের সমীক্ষক দলকে আরও অনুপ্রাণিত করবে। লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপি ১৯ আসন পাবে – আমাদের এই এক্সিট পোল দেখে অনেকেই গালি দিয়েছিলেন বা হাসাহাসি করেছিলেন।

কিন্তু, বাস্তবে বাংলায় বিজেপি ১৮ আসন ছিনিয়ে নিয়েছিল – খুবই অল্প ব্যবধানে হাতছাড়া করেছিল আরামবাগ আসনটি। তাই, আগামীকালের জন্য – আপনাদের মত আমরাও অধীর আগ্রহে তাকিয়ে ৩ আসনের বাস্তব ফলাফলের দিকে। সেই ফলাফল মুকুলবাবু বা প্রিয় বন্ধুর সমীক্ষার সঙ্গে মেলে নাকি সম্পূর্ণ বিপরীত ছবি উঠে আসে – তার সব খবর সবার আগে আপনাদের কাছে পৌঁছে দেব – সকাল ৮ টা থেকে, লাইভ অ্যান্ড এক্সক্লুসিভ – প্রিয় বন্ধু বাংলার পেজে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!