এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > “ওনার মাথা নয়, বয়স কথা বলছে” অমর্ত্য সেনকে বেনজির তোপ বিজেপি সাংসদের, জানুন বিস্তারিত

“ওনার মাথা নয়, বয়স কথা বলছে” অমর্ত্য সেনকে বেনজির তোপ বিজেপি সাংসদের, জানুন বিস্তারিত

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই বঙ্গ রাজনীতির অন্দরমহল যেন ধর্মযুদ্ধে পরিণত হয়। দিকে দিকে গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে জয় শ্রীরাম স্লোগান দেওয়া হলে তা নিয়ে প্রবল বিরোধিতা করতে দেখা যায় তৃণমূলকে। যা নিয়ে তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও বিভিন্ন মহলের সমালোচনার শিকার হতে হয়।

কেননা জয় শ্রীরাম স্লোগান দিলেই কেন সেটাকে রাজনৈতিক স্লোগান হিসেবে গ্রহণ করবেন তৃণমূল নেত্রী! তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করে অনেকেই। এই পরিস্থিতিতে এবার জয় শ্রীরাম স্লোগান নিয়ে নিজের বিরক্তি প্রকাশ করলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন।

বস্তুত, গত শুক্রবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় এই ব্যাপারে নিজের মতামত জানান এই নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ। আর সেখানেই তিনি বলেন, “জয় শ্রীরাম স্লোগান এখন মানুষকে মারধর করতেই ব্যবহার করা হচ্ছে। বাংলার সংস্কৃতির সঙ্গে এই স্লোগানে মিল পাওয়া যায় না। আমার মনে হয় এটা প্রাচীন শব্দ নয়, এটা ইদানীংকালের আমদানি।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিকে অমর্ত্য সেন এই কথা বলার সাথে সাথেই বিজেপির পক্ষ থেকে এর প্রবল বিরোধিতা করা হয়। শুক্রবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “অমর্ত্য সেনের কথা শোনার লোক নেই। যদি মানুষ শুনত ওদের কথা তাহলে এই ফলাফল হত না। মানুষ দুই হাত তুলে জয় শ্রীরাম বলছেন। অমর্ত্য সেনরা আসবেন, সরকারি পয়সায় খাবেন, চলে যাবেন, তবে বাংলার কোনো দায়িত্ব নেবেন না। উনি কি বাংলা বা ভারতের সংস্কৃতি সম্পর্কে কিছু জানেন!” আর নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদের প্রতি বিজেপি রাজ্য সভাপতির এহেন মন্তব্য নিয়েই তীব্র বিতর্ক শুরু হয়।

আর এবার সেই বিতর্কে আরও কিছুটা উসকে দিতে “অমর্ত্য সেনের বয়স হয়ে গিয়েছে” বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। সূত্রের খবর, এদিন ফেসবুকে একটি পোস্ট করে আসানসোলের এই বিজেপি সাংসদ লেখেন, “আমার মনে হয় ওনার মাথা নয়, বয়স কথা বলছে। আর এই কারণেই উনি জয় শ্রী রামের অর্থ বুঝতে পারেননি। বাংলায় জয় শ্রীরাম এখন প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে চিহ্নিত হচ্ছে। অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হিসেবেই এই শ্লোগানকে মানুষ ব্যবহার করছে।”

কিন্তু একজন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদের প্রতি এইভাবে মন্তব্য করা কি ঠিক! তা নিয়েই এখন উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন। বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, রাজনীতি ক্রমেই ধর্মের দিকে এগোচ্ছে। আর তাই তা বন্ধ করতেই জয় শ্রীরাম মারধরের কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছিলেন অমর্ত্য সেন। কিন্তু শাসকের চরিত্র একই হয়। আর তাই তো জয় শ্রীরামকে নিজেদের স্লোগান হিসেবে ধরে নিয়ে সেই অমর্ত্য সেনকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করছেন বিজেপি নেতারা বলে দাবি সমালোচক মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!