এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > নাবালিকা পরিচারিকাকে খুনের হুমকি দিয়ে এবার গ্রেপ্তার বাংলার বিজেপি নেতা

নাবালিকা পরিচারিকাকে খুনের হুমকি দিয়ে এবার গ্রেপ্তার বাংলার বিজেপি নেতা

 

সম্প্রতি উন্নাওয়ের অপহরণ এবং ধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়ককে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। আর আদালতের সেই আদেশ কাটতে না কাটতেই নাবালিকা পরিচারিকাকে খুনের হুমকি দিয়ে গ্রেপ্তার হলেন বঙ্গ বিজেপি নেতা। সূত্রের খবর, ভারতীয় জনতা পার্টির এক মন্ডল সভাপতি সুব্রত দাসের বিরুদ্ধে নাবালিকা পরিচারিকাকে খুনের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

জানা যাচ্ছে, কাপড় কাচা, বাসন মাজা এবং গৃহস্থালির অন্যান্য রকম কাজ করতে হত নাবালিকা ওই পরিচারিকাকে। সেই কাজ ঠিকঠাক ভাবে না করতে পারলে মালিকের তরফ থেকে তাঁকে শাস্তি দেওয়া হত। চড়, থাপ্পড়, কান ধরে উঠা-বসা রোজকার ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে সম্প্রতি হঠাৎ করে একদিন শরীর খারাপ হওয়ায় সে কাজ করতে পারছিল না। আর তারপরই বিজেপি মন্ডল সভাপতি তরফ থেকে পরিচারিকাকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়।

যদিও নিজের উপরে ওঠা সমস্ত রকমের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ভারতীয় জনতা পার্টির মন্ডল সভাপতি সুব্রত দাস। পুলিশ সূত্রে খবর, গত শনিবার লক্ষণপুর এলাকায় বয়েজ আদিবাসী হোস্টেলের কর্মরত মীরাবাঈ নামে একজন পরিচারিকা দেখেন নাবালিকা একটি মেয়ে খালি গায়ে রীতিমতো ভীত হয়ে হোস্টেলের দিকে আসছে।

মীরাদেবী বালিকার কাছে গিয়ে তাকে জিজ্ঞাসা করতে সে ঘাবড়ে যায়। পরবর্তীতে তাকে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে শান্তভাবে তার কাছে সব কথা জিজ্ঞাসা করার পরে গোটা ঘটনা খুলে বলেন 11 বছর বয়সী ওই নাবালিকা। আর তারপরেই হুরা থানায় অভিযোগ করা হলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

পরবর্তীতে পুলিশের তরফে জিজ্ঞাসাবাদে নাবালিকা সব ঘটনা জানান। আর এর পরেই পুলিশের তরফ থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বিজেপির মন্ডল সভাপতিকে। পুলিশের তরফ থেকে আরও জানা যায়, নাবালিকাকে শ্রম করানোর অভিযোগে ধৃত বিজেপি মন্ডল সভাপতির বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে। পুলিশের তরফ থেকে গোটা ব্যাপারে তদন্ত চালানো হচ্ছে। তাকে পুরুলিয়া আদালতে তোলা হবে। মন্ডল বিজেপির সভাপতির শিশুশ্রমের মত ঘটনায় জড়িয়ে পড়াকে কেন্দ্র করে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পুরুলিয়া জেলা রাজনীতিতে।

তবে মন্ডল সভাপতিকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মিথ্যা মামলায় জড়ানো হচ্ছে বলে দাবি করেছে জেলা বিজেপি। ঘটনা প্রসঙ্গে ভারতীয় জনতা পার্টির মিডিয়া প্রমুখ প্রদীপ মাহাতো বলেন, “আমাদের মন্ডল সভাপতি বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তোলা হয়েছে, তা একেবারেই ভিত্তিহীন। আমাদের নেতা কে ফাঁসানো হয়েছে। মন্ডল সভাপতির একটি সন্তান রয়েছে। তাকেই ধরার কাজ করত ওই নাবালিকা। তাকে দিয়ে কোনো কাজ করানো হয়নি।”

এদিকে রাজনৈতিক মহলের ধারণা, শিশুশ্রমের মতো গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগের অবশ্যই পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত হওয়া প্রয়োজন রয়েছে। তবে কোনো ক্ষেত্রেই রাজনৈতিক অভিসন্ধি চরিতার্থ করতে এই ধরনের মামলার অপব্যবহার করা উচিত নয়। তাই আগামী দিনে আদালত এই ব্যাপারে কি পদক্ষেপ গ্রহণ করে! সেদিকে লক্ষ্য থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!