এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > শুধু বাংলায় নয়, আসামেও বিজেপিকে আটকাতে তৃণমূলের এবার বিশেষ পদক্ষেপ

শুধু বাংলায় নয়, আসামেও বিজেপিকে আটকাতে তৃণমূলের এবার বিশেষ পদক্ষেপ

রাজ্যের বাইরে মূলত উত্তর-পূর্বাঞ্চলে অনেকদিন ধরেই ক্ষমতা বিস্তারের চেষ্টা করছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিভিন্ন রাজ্যে এর আগে পঞ্চায়েত বিধানসভা লোকসভা এসব ভোটে প্রার্থী দিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও তার ফল পাইনি তৃণমূল কংগ্রেস।

বেশিরভাগ জায়গাতেই তাদের জামানত জব্দ হয়ে গেছে। কিন্তু এবার রাজ্যের বাইরে তৃণমূলের সুদিন আসছে বলে মনে করছে তৃণমূল নেতৃত্ব। ভোটের আগে বিজেপি সরকারের এনআরসি-র হাওয়ায় ফের একবার অসমে ভাগ্যপরীক্ষায় তৃণমূল।

আর এবার অসমে ক্ষমতা দখলের কান্ডারী হতে চলেছেন খোদ পশ্চিমবঙ্গের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। আগামী মাসেই অসমে পঞ্চায়েত নির্বাচন। ১৫ নভেম্বর থেকে শুরু হবে তার মনোনয়নপর্ব। সেই নির্বাচনে বিভিন্ন আসনে প্রার্থী দিতে চলেছে তৃণমূল। মূলক বাঙালি অধ্যুষিত বরাক উপত্যকায় প্রার্থী দিতে চলেছে তৃণমূল।

তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যে বরপেটায় ছাত্র রাজনীতিতে কলেজ ছাত্র সংসদ দখল করেছে তারা। এবার ভোটযুদ্ধে সরাসরি ময়দানে নেমে অসমের বাঙালিদের পাশে থাকার বার্তা দিতে চায় পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল।

তৃণমূল কংগ্রেস দীর্ঘদিন ধরে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করলেও ভোট বাক্সে তা খুব একটা প্রতিফলিত হচ্ছে না। অন্যদিকে, সম্প্রতি এনআরসি বিতর্কের মধ্যেই পদত্যাগ করেন অসম তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি দ্বীপেন পাঠক। তারপর এখনো পর্যন্ত দলের জন্য যোগ্য নেতৃত্ব ঠিক করতে পারেনি তৃণমূল কংগ্রেস। আর তাই কার্যত খোঁড়া সংগঠন নিয়েই পঞ্চায়েত নির্বাচনে ঝাঁপাতে চলেছে তৃণমূল।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, উত্তর-পূর্বে দলের দলের বিস্তার ঘটানোর চেষ্টা দীর্ঘদিন ধরেই চালিয়ে আসছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর আগেও অসম ছাড়াও অরুণাচল প্রদেশ, মণিপুর ও ত্রিপুরায় বহুবার সংগঠন বিস্তারের চেষ্টা চালিয়েছে বাংলার শাসক দল।

যদিও সেই প্রচেষ্টায় সাফল্য তেমন মেলেনি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তাদের জামানত জব্দ হয়েছে। এদিকে এবার অসমে এনআরসি বিতর্কে মাঝে ভোট আসতেই ফের আবারও একবার ক্ষমতা দখলে তত্পর হয়ে উঠেছে ঘাসফুল শিবির।

এদিন এবিষয়ের অসমের দায়িত্বপ্রাপ্ত তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম বলেন, “বিজেপি অপশাসন ও এনআরসির মাধ্যমে ভারতীয়দের দেশছাড়া করার পরিকল্পনার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে তৃণমূল।তৃণমূল সবসময়ই মানুষের পাশে ছিল এখনও আছে আর ভবিষ্যতেও থাকবে। অসমে বাঙালিদের ওপর অত্যাচারের বিরুদ্ধে তৃণমূলের লড়াই জারি থাকবে গোটা রাজ্যে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,গত ১ নভেম্বর অসমের তিনসুকিয়ায় নিহত ৫ বাঙালির স্মরণসভায় অংশগ্রহণ করেন পশ্চিমবঙ্গে পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। গুয়াহাটিতে এই সভায় ঘটনার জন্য বিজেপি ও রাজ্য সরকারকে কাঠগড়ায় তোলেন তিনি।এখন দেখার এই বিতর্কিত পরিস্থিতি দাঁড়িয়ে অসমে তৃণমূলের ভাগ্য খোলে কিনা?

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!