এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বাংলায় গেরুয়া ঝড় প্রমাণে মোদির ব্রিগেডে অন্তত 10 লক্ষ জমায়েতের নির্দেশ খোদ অমিত শাহের

বাংলায় গেরুয়া ঝড় প্রমাণে মোদির ব্রিগেডে অন্তত 10 লক্ষ জমায়েতের নির্দেশ খোদ অমিত শাহের

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলাই তাদের পাখির চোখ বলে ইতিমধ্যেই দলীয় নেতৃত্বকে এই বাংলা থেকে ব্যাপক সংখ্যক আসন দখলে রাখার নির্দেশ দিয়ে দিয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তবে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে সেই বাংলায় গেরুয়া ঝড় তুলতে আগামী 3 এপ্রিল রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

মূলত সেদিন প্রথমে উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়িতে সভা করে কলকাতায় ব্রিগেডে সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী। আর ইতিমধ্যেই নরেন্দ্র মোদির ব্রিগেডের এই সভাকে সার্থক করতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর তরফে দলের রাজ্য নেতৃত্বকে ব্যাপক জমায়েত করবার জন্য নির্দেশ দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সূত্রের খবর, দক্ষিণবঙ্গের প্রতিটা জেলা নেতৃত্বকে কমপক্ষে 30 থেকে 40 হাজার লোক আগামী 3 এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীর কলকাতার ব্রিগেড সমাবেশে হাজির করতে হবে বলে ইতিমধ্যেই রাজ্যকে তার নির্দেশ দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। আর দলের সর্বভারতীয় সভাপতির এহেন নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী সমাবেশকে সার্থক করবার জন্য জোর প্রচারে নেমে পড়েছেন দক্ষিণবঙ্গের জেলা বিজেপি নেতৃত্বরা।

কিন্তু একই দিনে যেখানে প্রধানমন্ত্রী উত্তরবঙ্গের সভা করার পর দক্ষিণবঙ্গের কলকাতার ব্রিগেড সমাবেশ করতে আসছে, সেখানে শুধুমাত্র দক্ষিণবঙ্গ জেলাগুলিকে দিয়ে এই ব্রিগেডের মাঠ ভরানো যাবে? কেননা উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়িতে সভা করার পর উত্তরবঙ্গ থেকে আর কোন মানুষ দক্ষিণবঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সভা দেখতে আসবেন না। তাই শুধুমাত্র দক্ষিণবঙ্গের উপর ভরসা করে বিজেপি ব্রিগেডের এত বড় মাঠকে কি ভরাতে পারবে! তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে উঠতে শুরু করেছে নানা প্রশ্ন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, বর্তমানে গোটা রাজ্যে বিজেপির সাংগঠনিক জেলার সংখ্যা মোট 38 টি। আর ব্রিগেডে যদি 10 লক্ষ লোকের জমায়েত করতে হয় তাহলে দক্ষিণবঙ্গের 30 টি সাংগঠনিক জেলা থেকে বিজেপিকে সেই লোক নিয়ে আসতে হবে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, গত 19 শে জানুয়ারি তৃণমূলের পক্ষ থেকে ডাকা বিজেপি বিরোধী মহাজোটে কলকাতার ব্রিগেড সমাবেশ দারুন আকার নিয়েছিল।

তাই তৃণমূলের সেই ব্রিগেড সমাবেশকে টেক্কা দিতেই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে শুধুমাত্র দক্ষিণবঙ্গের উপর ভরসা করে পৃথকভাবে কলকাতার মাটিতে সেই দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলি থেকে 10 লক্ষ লোকের জমায়েত যাতে করা যায় তার জন্য দলের রাজ্য নেতৃত্বকে নির্দেশ দিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

এদিন এই প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির এক নেতা বলেন, “2014 সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ব্রিগেড সমাবেশে পাঁচ লক্ষ লোকের জমায়েত হয়েছিল। এবার তার টার্গেট বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে।” সব মিলিয়ে একই দিনে উত্তরবঙ্গ থেকে সভা করে এসে কলকাতার ব্রিগেডের সভায় ব্যাপক জমায়েত করে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকে টেক্কা দিতে মরিয়া গেরুয়া শিবির বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!