এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপির বাংলা থেকে 22 আসনের স্বপ্ন কি বাস্তবে পূরণ হওয়া আদৌ সম্ভব?

বিজেপির বাংলা থেকে 22 আসনের স্বপ্ন কি বাস্তবে পূরণ হওয়া আদৌ সম্ভব?

গোবলয়ের মত রাজ্যগুলি বিজেপির থেকে মুখ ফেরানোয় এখন বাংলা, ওড়িশার মত রাজ্যগুলিই মূল টার্গেট গেরুয়া শিবিরের। বাংলার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে চাপে রেখে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলার 42 টি আসনের মধ্যে 22 টি আসন দখলের টার্গেট নিয়েছে তাঁরা। কিন্তু যে রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস দাপটের সঙ্গে নিজেদের ক্ষমতার জাল বিস্তার করে রেখেছে, এবং যেখানে বিজেপি’র অতটা সংগঠন নেই বললেই চলে সেইখানে ঠিক কিভাবে 22 টি আসন দখল করবে পদ্ম শিবিরের নেতারা?

বিজেপির একাংশের দাবি, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে এই রাজ্যের বেশ কিছু যে জেলায় শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলেছে গেরুয়া শিবির। এমনকি কিছু কিছু জায়গায় পঞ্চায়েতও দখল করেছে তাঁরা। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে গ্রামাঞ্চলের যে ভোট ব্যাংকের উপর ভরসা করে এগোত রাজ্যের শাসক দল, সেই ভোটব্যাঙ্ককেও থাবা বসিয়েছে গেরুয়া শিবির। আর সেই ভাবনাকে মাথায় রেখেই রাজ্যের 22 টি আসন দখলে ঘুটি সাজাচ্ছেন কেন্দ্রের বিজেপি নেতারা।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

ইতিমধ্যেই লোকসভা নির্বাচনের আগে এই রাজ্যে নিজেদের সাংগঠনিক দিক থেকে চাঙ্গা করতে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছেন বিজেপি নেতারা। পাশাপাশি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে ভাঙ্গন ধরিয়ে ইতিমধ্যেই এক তৃণমূল সাংসদ সৌমিত্র খাঁর হাতে বিজেপির পতাকা ধরিয়েছেন রাজ্য বিজেপির মুকুল রায়রা।

এমনকি লোকসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূলের অনেক নেতা, বিধায়ক, সাংসদেরা বিজেপিতে আসবেন বলে জল্পনা বাড়িয়ে দিয়েছেন রাজ্য বিজেপির সদর দপ্তর মুরলীধর লেনের কর্তারা। আর তাই সেই ভাবনায় মশগুল হয়েই এবার আগামী লোকসভা নির্বাচনে  22 -23 টি আসন বাংলা থেকে নিজেদের ঝুলিতে পোড়ার চেষ্টা করছেন গেরুয়া শিবিরের সেনাপতিরা। তবে শুধু শাসক দলের নেতাদের তাদের দলে যোগদান করিয়ে তো বাংলায় দলীয় সংগঠন বৃদ্ধি পাবে না, তাই তো রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিভিন্ন দুর্নীতির কথা সামনে এনে লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছে বিজেপি।

তবে বিজেপির এই 22 টি আসন দখলের কথাকে খুব একটা পাত্তা দিতে নারাজ রাজ্যের ঘাসফুল শিবির। তৃণমূল নেতাদের দাবি, “22 টি তো দূর অস্ত, বিজেপির দখলে থাকা রাজ্যের বর্তমান দুটি লোকসভা আসনও ওদের হাতছাড়া হবে।” সব মিলিয়ে আগামী লোকসভা নির্বাচনে কে কত আসন পাবে তা দেখবার জন্য অপেক্ষা করতেই হবে আগামী লোকসভা নির্বাচনের ভোটবাক্স খোলা পর্যন্ত।

Top
error: Content is protected !!