এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলা নিয়ে অপপ্রচারের জবাব দিতে ও দিল্লি দখলের ডাক দিতে দিল্লিতেই বিশেষ পরিকল্পনায় মমতা

বাংলা নিয়ে অপপ্রচারের জবাব দিতে ও দিল্লি দখলের ডাক দিতে দিল্লিতেই বিশেষ পরিকল্পনায় মমতা

১ লা অগষ্ট দিল্লীর সেন্ট স্টিফেন্স কলেজের আমন্ত্রনে বক্তৃতা দিতে ৩১ শে জুলাই রাজধানী যাচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঐ কলেজের ছাত্রছাত্রীদের সামনে  ‘ভারত নামক ভাবনা’ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী বক্তব্য রাখবেন। তিনি ভারতের ইতিহাস , সংস্কৃতি , শিক্ষা এছাড়াও নানা বিষয়ের মাধ্যমে উপযুক্ত উদাহরণ সহযোগে নিজের ভাষণ সাজাবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

২০১৪ সালে গত লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী তথা সেইসময়ে প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার নরেন্দ্র মোদী ও দিল্লীর একটি বিজনেস স্কুলে ছাত্র ছাত্রীদের সামনে তাঁর বক্তব্য পেশ করেন। সেই সময়ে তাঁর একমাত্র লক্ষ্য ছিলো গোধরা কলঙ্ক ঘোচানো। আর রাজনৈতিক মহলের মতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লী সফর কালে দিল্লীর মেধা সমৃদ্ধ ঐ কলেজে বক্তৃতার মূল লক্ষ্য হবে পশ্চিমবঙ্গ নিয়ে ‘অপপ্রচার’ এর যোগ্য জবাব দেওয়া। উল্লেখ্য এটিই প্রথম মুখ্যমন্ত্রীর রাজধানীর কোনও অভিজাত প্রতিষ্ঠানে বক্তব্য পেশের জন্যে আমন্ত্রন। এই সফরে ৩১ শে জুলাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খ্রীস্টান সংগঠন আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন। এদিনের অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করবেন দিল্লীর বিশপরা।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে সংখ্যালঘুরা যে নিরাপত্তাজনিত সঙ্কটে রয়েছেন তার প্রেক্ষিতেই এই সভার আয়োজন। মুখ্যমন্ত্রীর এই সফর সূচীর বিষয়ে সমস্ত পরিকল্পনা বেশ কিছু দিন আগে থেকেই খাতায় কলমে করে রেখেছেন রাজ্যসভার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন। তৃণমূল কংগ্রেস  দলনেত্রী তাঁর সফর সূচী অনুসারে ১ লা অগস্ট সংসদে যাবেন।

পরিকল্পনা অনুয়ারী তিনি সেন্ট্রাল হলে আঞ্চলিক অন্য দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। আগামী বছর ১৯ শে জানুয়ারী ব্রিগেড প্যারেড ময়দানে আয়োজিত জনসভাতে তিনি ব্যক্তিগত ভাবে নেতাদের আমন্ত্রন জানাবেন। সমস্ত আঞ্চলিক দলের সুপ্রিমোদের সাথে পৃথক পৃথক ভাবে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকের সম্ভবনা রয়েছে। অবিজেপি জোট গঠনের লক্ষ্যে সকল আঞ্চলিক দলকে এক সাথে জোটবদ্ধ করতে চাইছেন তিনি। এদিকে কংগ্রেস সূত্রেও জানা গিয়েছে দলের সভাপতি রাহুল গান্ধী স্বয়ং বিজেপি বিরোধী রাজনীতির রণকৌশল তৈরীর জন্যে তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমর সাথে বৈঠকে আগ্রহী হয়েছেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!