এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > বাংলা আবাস যোজনায় বেনিয়ম? উপভোক্তাদেরই সতর্ক করছে প্রশাসন

বাংলা আবাস যোজনায় বেনিয়ম? উপভোক্তাদেরই সতর্ক করছে প্রশাসন

কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার নাম বদলে বাংলা আবাস যোজনা নামে নতুন প্রকল্প শুরু করেছে রাজ্য সরকার। নবান্ন সূত্রের খবর, গোটা রাজ্যে এই বাংলা আবাস যোজনায় সবচেয়ে বেশি ঘর দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথমে মুর্শিদাবাদ এবং তারপরেই রয়েছে বীরভূম জেলা।

জানা গেছে, এই বীরভূমে প্রথম বছরে মোট বাড়ি দেওয়া হয় 69 হাজার 707 টি। যা নিয়ে জেলার বিভিন্ন ব্লকে গিয়ে সভাও করে তৃনমূল কংগ্রেস। এমনকী এই বাড়ি তৈরিতে যাতে কোনো অনিয়মকে প্রশ্রয় দেওয়া না হয় সেই কথাও জনসাধারনকে স্মরন করিয়ে দেন তৃনমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডল। তবে শুধু শাসকদলই নয়, এবার এই  নিয়ে সরব হলেন বীরভূমের জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা।

সাথেই বাংলা আবাস যোজনায় বেনিয়ম ঠেকাতে উপভোক্তাদের সতর্ক করলেন বীরভূমের জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা। এই নিয়ে তিনি বলেন, আবাস প্রকল্পে বাড়ি পেতে গেলে কাউকে কিছু দিতে হয় না, আপনার অ্যাকাউন্টে সরকারি টাকা চলে যাবে। বাড়ি তৈরিতে পঞ্চায়েত ও ব্লকস্তরের কর্মী-আধিকারিকরা সাহায্য করবেন। 

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

জেলা প্রশাসন সূত্রের খবর, এই বাংলা আবাস যোজনায় 12 তম স্থানে রয়েছে এই বীরভূম জেলা। তবে এই জেলায় ময়ুরেশ্বর 2, মহম্মদবাজার, নলহাটি 2, ইলামবাজার এই বিভিন্ন অঞ্চলে বাড়ি তৈরির কাজে পিছিয়ে রয়েছে। এদিন এই বাংলা আবাস যোজনার শেষ সপ্তাহে বীরভূমে এই অনুষ্টানে জেলাশাসক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলাশাসক সহ অনেকেই ।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!