এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > “চৈত্রসেলের” সিপিএমকে কিনে নেওয়া বিজেপিকে আটকাতে বাঁকুড়ার মাটি কামড়ে পড়ে থাকবেন তৃণমূলের “যুবরাজ”

“চৈত্রসেলের” সিপিএমকে কিনে নেওয়া বিজেপিকে আটকাতে বাঁকুড়ার মাটি কামড়ে পড়ে থাকবেন তৃণমূলের “যুবরাজ”

লোকসভা নির্বাচনের দামামা বেজে যাওয়ায় বর্তমানে শাসক বনাম বিরোধীর তরজায় সরগরম রাজ্যের রাজনৈতিক মহল। আর এবার বাকুড়ায় গিয়ে বাঁকুড়া লোকসভার তৃণমূল প্রার্থী তথা দীর্ঘদিনের রাজনীতিবিদ সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী শ্যামল সাঁতরা সমর্থনে জনসভা করে একদিকে রাজ্যের বিগত বাম সরকার এবং কেন্দ্রের বর্তমান বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় আক্রমণ শানালেন রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সেকেন্ড ইন কমান্ড তথা যুব তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, এদিন বাঁকুড়া স্টেডিয়ামে আয়োজিত তৃনমূলের এই কর্মীসভায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূলের দুই প্রার্থী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শ্যামল সাঁতরা, বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি অরূপ খাঁ, বাঁকুড়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু, জেলা পরিষদের মেন্টর অরূপ চক্রবর্তী সহ অন্যান্যরা।

আর সেখানেই বক্তব্য রাখতে উঠে বাম ও বিজেপিকে একযোগে আক্রমণ করেন যুব তৃনমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি। এদিন তিনি বলেন, “বিজেপি এখন চৈত্র সেলের মত সিপিএমকে কিনে নিয়েছে। আগে যারা লাল জামা পড়ে মানুষ খুন করত, তারাই এখন গেরুয়া জামা পড়ে দাঙ্গা করে বেড়াচ্ছে। মাথায় রাখবেন বিজেপিকে এক ইঞ্চি জমিও ছাড়া যাবে না।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে নরেন্দ্র মোদি চা বিক্রেতা বলে ক্ষমতায় আসলেও গত পাঁচ বছরে একবারও তাকে চা বিক্রি করতে দেখতে পাননি মানুষ। তবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাত বছর আগেও যেভাবে হাওয়াই চটি এবং সাদা কাপড় পড়ে ঘুরেছেন, ক্ষমতায় আসার পরও সেই একই আদব কায়দায় মানুষের উন্নয়ন করে গিয়েছেন। তাই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই সমর্থন করবেন সাধারন মানুষ বলে জানান অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

পাশাপাশি কেন্দ্র বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও প্রকল্প করলেও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মস্তিষ্কপ্রসূত কন্যাশ্রী প্রকল্প, উৎকর্ষ বাংলার মত প্রকল্পগুলো আজকে সারা বিশ্বের দরবারে সমাদৃত হয়েছে বলে মন্তব্য করেন অভিষেক বাবু। আর এরপরই বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিরোধীদের এক ইঞ্চি জায়গা ছাড়া হবে না বলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ভোটের আগে আমি টানা সাতদিন বাকুড়ায় থাকব। বাইশটি ব্লকে সভা করব। যত বেশি সম্ভব এখানকার কর্মীদের সঙ্গে মিলিত হব। বিরোধীদের এক ইঞ্চি জমিও এখানে ছাড়া হবে না।”

এদিকে এদিনের এইকর্মী সভায় উপস্থিত বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী তথা দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদ সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, “অভিষেক আমার থেকে অনেক ছোটো। অভিষেকের প্রস্তাবেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে প্রার্থী করেন। দলনেত্রী আমার ওপর এবার গুরুত্বপূর্ণ কাজের ভার দিয়েছেন। দলের কর্মীদের পাশে নিয়ে আমি নেত্রীর সেই আস্থা অটুট রাখতে বদ্ধপরিকর।”

সব মিলিয়ে এবার বাঁকুড়াতে গিয়ে দলীয় প্রার্থীদের জেতাতে সাধারণ মানুষের কাছে আহ্বান জানিয়ে বিরোধীদের একহাত নিলেন যুব তৃনমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!