এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলায় বিধানসভা ভোটে কি হচ্ছে সিপিআইএম ও কংগ্রেস জোট! দুই হেভিওয়েটের বৈঠক ঘিরে জোর জল্পনা

বাংলায় বিধানসভা ভোটে কি হচ্ছে সিপিআইএম ও কংগ্রেস জোট! দুই হেভিওয়েটের বৈঠক ঘিরে জোর জল্পনা

গত 2016 সালে বিধানসভা নির্বাচনে শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে এককাট্টা হয়ে লড়েছিল তারা। আর সেই সময় কংগ্রেস এবং বামেদের মধুচন্দ্রিমাকে তৃণমূল এবং বিজেপি বিরোধী মানুষেরা গ্রহণ করেছিল। তবে নিজেদের এই মিলনের মুহূর্তকে বেশিদিন টিকিয়ে রাখতে পারেননি আলিমুদ্দিন স্ট্রিট এবং বিধান ভবনের নেতৃত্বরা। আর তাইতো শত চেষ্টা করেও সদ্যসমাপ্ত 2019 এর লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় শাসক দল তৃণমূল ও বিরোধী দল বিজেপিকে ঠেকাতে তারা দু পক্ষ কোনোওমতেই এক হতে পারল না।যার ফলে বাংলায় বর্তমানে শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রথম বিরোধী দলের তকমা নিজেদের গায়ে লাগিয়ে নিয়েছে বিজেপি। ফলে নিজেদের জায়গা থেকে অনেকটাই ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে সেই বাম এবং কংগ্রেস। একের পর এক নির্বাচনে তারা ধরাশায়ীর মুখে।

কিন্তু এবারে অবশেষে সেই বাংলায় তৃণমূল এবং বিজেপির ভোটব্যাংককে রুখে নিজেদের ভোটব্যাংককে শক্ত করতে উদ্যোগী হল কংগ্রেস এবং বামফ্রন্ট। সূত্রের খবর, মঙ্গলবারই আলিমুদ্দিনে চার বামদলের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আর সেখানেই উপস্থিত ছিলেন ফরওয়ার্ড ব্লকের নেতা নরেন চট্টোপাধ্যায় এবং হাফিজ আলম সৈরানি। যেখানে তারা প্রস্তাব দেন, কংগ্রেস সহ সমস্ত গণতান্ত্রিক দলকে নিয়ে বিজেপি এবং তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজ্যে একটি নতুন মঞ্চ করা হোক।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

এদিকে আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে এই বৈঠক যখন চলছে, ঠিক তখনই বুধবার দিল্লিতে প্রদেশ কংগ্রেস সমন্বয় কমিটির চেয়ারম্যান প্রদীপ ভট্টাচার্যের সঙ্গে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির আলোচনা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে এল। তাহলে কি অবশেষে 2016 বিধানসভা নির্বাচনের পর এবার পাকাপাকিভাবে বাম এবং কংগ্রেস দুই দল নিজেদের হাত ধরতে চলেছে! এদিন এই প্রসঙ্গে কংগ্রেসের প্রদীপ ভট্টাচার্য্য বলেন, “বিক্ষিপ্তভাবে কিছু কর্মসূচি নিয়ে লাভ হবে না। ঠিক হয়েছে জুলাইয়ের শেষ বা আগস্টের শুরুতে কংগ্রেস এবং সিপিএম নেতারা দিল্লিতে আলোচনায় বসবে। সেখানেই দু’দলের রাজ্য নেতারা উপস্থিত থাকবেন।”

অন্যদিকে আগামী শনিবারই কলকাতায় প্রমোদ দাশগুপ্ত স্মারক বক্তৃতায় অংশগ্রহণ করার কথা রয়েছে সিপিএমের সীতারাম ইয়েচুরির। জানা গেছে, সেখানেই ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে ও কংগ্রেসের সাথে জোটের ব্যাপারে দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন তিনি। কিন্তু যেভাবে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপি ক্রমশ শক্তিশালী হয়ে উঠছে, তাতে ভোটব্যাঙ্ক ক্রমশ বিজেপির দিকে চলে যাওয়া এই কংগ্রেস এবং বামফ্রন্ট কি তাদের হৃতগৌরব পুনরুদ্ধার করতে পারবে, এখন তা নিয়েই উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, কি হবে তা সময় বলবে। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে, ততই বাংলার রাজনৈতিক পরিস্থিতির পরিবর্তন হচ্ছে। ফলে সেদিক থেকে কংগ্রেস এবং বামফ্রন্টের মধ্যে এই মিলন আদৌ সম্ভব হয় কিনা! আর যদিও বা হয় তাহলে তা ভবিষ্যতের পক্ষে কতটা সুখকর হবে, এখন সেদিকেই নজর সকলের।

Top
error: Content is protected !!