এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কতটা সফল হল বনধ! জেনে নিন

কতটা সফল হল বনধ! জেনে নিন


 

প্রায় 24 টি সংগঠনের ডাকে বুধবার সারা দেশজুড়ে 24 ঘন্টার সাধারণ ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছিল। যে ধর্মঘটে সমর্থনে দাবি জানিয়ে রাজ্যে ব্যাপক প্রচার করেছিল বাম এবং কংগ্রেস। কিন্তু কেন্দ্রীয় নীতির বিরুদ্ধে এই ধর্মঘট ডাকা হলেও, তাকে সমর্থন করেনি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। ইস্যুকে সমর্থন করলেও, তারা বনধ সমর্থন করবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। যার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য সরকার এই বনধকে ব্যর্থ করার জন্য রাস্তায় নামবে বলে মনে করা হচ্ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত কেমন হল এই বনধ! দিনের শেষে এখন তা নিয়েই নানা প্রশ্ন, আলোচনা শুরু হয়েছে চায়ের ঠেক থেকে শুরু করে আড্ডা পর্বে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, এদিন কলকাতা শহরের সকাল আটটা পর্যন্ত এই ধর্মঘটের কোনো প্রভাব দেখা না গেলেও, অন্যান্য দিনের তুলনায় অনেক কম যান চলাচল লক্ষ্য করা গেছে। প্রথম দিকে ধর্মঘটের সমর্থনে বামেদের মিছিল যাদবপুর স্টেশনে পৌঁছলে শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার ট্রেন চলাচল কিছুটা হলেও ব্যহত হতে দেখা যায়। একইভাবে বনধের সমর্থনে বারাসাতেও মিছিল বের করে সকল যান চালকদের পরিষেবা বন্ধ রাখার আবেদন জানাতে দেখা যায় বামফ্রন্টের নেতা কর্মীদের। তবে শ্যামনগর ও কোন্নগর স্টেশনে রীতিমতো অবরোধ করে ধর্মঘট কারীরা পরিস্থিতিতে অন্য পর্যায়ে নিয়ে যায়।

শুধু তাই নয়, পাঁশকুড়াতে বনধের সমর্থনে রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে দেখা যায় বনধ সমর্থনকারীদের। তবে শুধু দক্ষিণবঙ্গ নয়, উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়িতেও এদিন বনধের সমর্থনে মিছিল করেন বামফ্রন্টের নেতা কর্মীরা। সমর্থনকারীদের এই লাগাতার বিক্ষোভ এবং বন্ধের সমর্থনে রাস্তায় নামায় কিছুটা হলেও অন্যান্য দিনের থেকে পরিষেবা ব্যাহত হয়। যার ফলে সারা দেশজুড়ে ডাকা ধর্মঘটের প্রভাব কিছুটা হলেও বাংলায় পড়ল বলে মনে করছে বিশ্লেষকরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!