এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > বালুরঘাট জুড়ে বিজেপি কর্মীদের উপর আক্রমণ, দাপিয়ে ভোট করে জয়ের আশায় তিন প্রার্থীই

বালুরঘাট জুড়ে বিজেপি কর্মীদের উপর আক্রমণ, দাপিয়ে ভোট করে জয়ের আশায় তিন প্রার্থীই

তৃতীয় দফায় শান্তিপ্রিয় এলাকা বলে পরিচিত বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচনের দিকে নজর ছিল অনেকেরই। তবে নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু হতে না হতেই শাসক বনাম বিরোধী একে অপরের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে শুরু করল এই বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে।

সূত্রের খবর, বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের কুশমন্ডি এলাকায় তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ এবং এই কেন্দ্রেরই বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদার দুজন দুজনের সাথে তীব্র বচসায় জড়িয়ে পড়েন। পরে পরিস্থিতি সামলাতে দুই দলের প্রার্থীর পক্ষ থেকে নিজেদের কর্মীদের সংযত হওয়ার আবেদন জানানো হয়।

জানা যায়, তৃতীয় দফার ভোটে এদিন সকাল সকাল নিজের বাড়ি থেকে বেরিয়ে সোজা হিলিতে চলে যান তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ। আর সেখান থেকে বালুরঘাট হয়ে তপন গঙ্গারামপুরের বিভিন্ন বুথ পরিদর্শন করে ইটাহার এবং পরে কুশমন্ডিতে আসেন অর্পিতাদেবী।

এদিকে এদিন সকালে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদার বালুরঘাটের খাদিমপুর এলাকায় গিয়ে দেখেন যে, শাসক দল তৃণমূলের পক্ষ থেকে ভোটারদের ঝাল মুড়ি দেওয়া হচ্ছে। সাথে সাথেই গোটা বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টিতে এনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান তিনি।

হাতের মুঠোয় আরও সহজে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে যোগ দিন –

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

অন্যদিকে একইভাবে এদিন সকাল থেকেই বিভিন্ন বুথে বুথে ঘুরতে দেখা যায় এখানকার বাম প্রার্থী রনেন বর্মনকে। তবে মাঝে কুশমন্ডি এলাকার একটি স্কুলে তৃণমূল এবং বিজেপির কর্মী সমর্থকদের মধ্যে প্রবল বচসা হওয়ায় সেখানে মুখোমুখি হয়ে যান তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ এবং বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদার।

সূত্রের খবর, প্রথমে সেখানে খবর পেয়ে অর্পিতাদেবী আসলে পরে বিজেপির পক্ষ থেকে তাদের প্রার্থী সুকান্ত মজুমদারকে খবর দেওয়া হয়। আর খবর পাওয়ার সাথে সাথেই সুকান্ত বাবু সেখানে এসে তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষের উদ্দেশ্যে বলেন, “আপনি আপনার কর্মীদের সংযত থাকতে বলুন।” পরে অবশ্য দুই প্রার্থীই তাদের দলীয় কর্মীদের সংযত থাকার আবেদন জানিয়ে এলাকা ছাড়েন। কি হবে ফলাফলে?

এদিন এই প্রসঙ্গে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ বলেন, “আমি সারা জেলায় ঘুরেছি। বিরোধীরা অনেক বুথেই নির্বাচনী এজেন্ট দিতে পারেনি। মানুষ শান্তিতে ভোট দিয়েছে। আমার জয় নিশ্চিত।” অন্যদিকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদার বলেন, “আসলে তৃণমূল ভয় পেয়েছে। তাই ওরা বলছে যে আমরা নাকি সব বুথে এজেন্ট দিতে পারিনি। আমরা 100 শতাংশ বুথে এজেন্ট দিয়েছি। সেই তালিকা ওদের দিয়ে দেব। কিন্তু একাধিক বুথ থেকে আমাদের এজেন্টকে জোর করে বের করে দেওয়া হয়েছে। নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানানোর পরও কোনো লাভ হয়নি।”

একইভাবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছেন বাম প্রার্থী রনেন বর্মনও। এদিন তিনি বলেন, “অনেক জায়গায় আমাদের এজেন্টকে মারধর করে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। যতটা পেরেছি নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানিয়েছি‌। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, ভোটপর্বে অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ থাকবেই। কিন্তু বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে যেভাবে দিনভর দাপিয়ে ভোটপর্বে শামিল হলেন শাসক-বিরোধী সব দলের প্রার্থীরা, তাতে শেষ পর্যন্ত কে শেষ হাসি হাসে তা দেখবার জন্য নজর রাখতেই হবে আগামী 23 মের দিকে।

Top
error: Content is protected !!