এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বালি পরিবহনের স্বচ্ছতা আনতে বড়সড় পদক্ষেপ জেলা প্রশাসনের, বাঁকুড়ায় বন্ধ 65 টি ঘাট

বালি পরিবহনের স্বচ্ছতা আনতে বড়সড় পদক্ষেপ জেলা প্রশাসনের, বাঁকুড়ায় বন্ধ 65 টি ঘাট

এবার বালি পরিবহনে স্বচ্ছতা আনতে উদ্যোগী হচ্ছে বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন। কড়া নির্দেশের পরও খাদান মালিকদের একাংশ পোর্টালে নাম না তোলায় এবার কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে সেই জেলার প্রশাসন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই বাঁকুড়া জেলার তারকেশ্বর, দামোদর, কংসাবতী সহ বিভিন্ন নদ-নদীতে মোট 125 টি বৈধ বালিঘাট রয়েছে।

জানা গেছে, জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তর থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে সেই সমস্ত ঘাট নিলামে তোলার পরই ঘাট মালিকরা সেখান থেকে বালি উত্তোলন শুরু করেন। কিন্তু এই বালি পরিবহনের জন্য গাড়ি পিছু নির্দিষ্ট পরিমান টাকা সরকারকে রাজস্ব হিসেবে দেওয়ার জেলা ভূমি দপ্তরের পক্ষ থেকে একটি চালান ইস্যু করা হয়। আর এখানেই অভিযোগ যে, একটি চালান একবারের বেশি ব্যবহার করা না গেলেও খাদান মালিকদের একাংশ তা একাধিকবার ব্যবহার করছে।

ফলে ঠিকমত রাজস্ব আদায়ে ব্যর্থ হচ্ছে প্রশাসন। এমনকি চালান না ছাড়াও এই বালি অনেক সময় পাচার করা হচ্ছে। আর এই অনিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থায় ইতি টানতে গত একমাস আগে খাদান মালিকদের মোবাইল নম্বর নথিভূক্ত করানোর জন্য একটি পোর্টাল চালু করে বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন।

যে পোর্টালের সাহায্যে বালি পরিবহনের সময় সেই মোবাইল নম্বর থেকে গাড়ির নম্বর, চালান নম্বর এবং সময় এসএমএসের মাধ্যমে প্রশাসনের কাছে পাঠানো যাবে। এমনকি পুরো ব্যবস্থায় কোন রকম গরমিল হলেও তা নজরে চলে আসবে প্রশাসনের।

কিন্তু প্রশাসনের তরফে এই পোর্টালে খাদান মালিকদের মোবাইল নম্বর নথিভূক্ত করতে বলা হলেও এখনও পর্যন্ত 65 জন খাদান মালিক তাদের কোনরূপ মোবাইল নম্বর জমাই দেননি। আর তাই গত সোমবার সন্ধ্যায় এই ব্যাপারে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বাঁকুড়া জেলা শাসক উমাশংকর এ স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, এইসব খাদান থেকে অবিলম্বে বালি তোলা নিষিদ্ধ করতে হবে। এমনকি বালিঘাট গুলি থেকে যাবতীয় সরঞ্জাম বাজেয়াপ্ত করার জন্য জেলা পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

শুধু তাই নয়, সেই 65 জন খাদান মালিকদের বিরুদ্ধেও এবার কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে প্রশাসন। এদিকে জেলা শাসকের নির্দেশ পাওয়ার সাথে সাথেই সংশ্লিষ্ট সমস্ত থানাকে এই 65 টি বালি খাদানে অভিযান চালানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছেন জেলার পুলিশ সুপার। সব মিলিয়ে বালি পরিবহনে স্বচ্ছতা আনতে এবার প্রশাসনের নিয়ম মত না চলায় বাকুড়ায় কার্যত বন্ধের মুখে 65 টি বালিঘাট।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!