এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > বিজেপির সাংগঠনিক বৈঠকে অনুপস্থিত বাবুল সুপ্রিয়, জল্পনা তুঙ্গে

বিজেপির সাংগঠনিক বৈঠকে অনুপস্থিত বাবুল সুপ্রিয়, জল্পনা তুঙ্গে

গতকাল থেকে আসানসোলের এক বেসরকারি হোটেলে রাজ্য বিজেপির সাংগঠনিক বৈঠক শুরু হয়েছে। সেখানে কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, সুরেশ পূজারী থেকে শুরু করে উপস্থিত আছেন রাজ্যনেতা দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহা, মুকুল রায়, সায়ন্তন বসু সহ প্রায় সমস্ত রাজ্যস্তরের শীর্ষনেতা ও বিজেপির সাংগঠনিক জেলা সভাপতিরা। কিন্তু সেখানে আশ্চর্যরকম অনুপস্থিতি স্বয়ং আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই গতকাল সকাল থেকে তীব্র জল্পনা শুরু হয় গেরুয়া শিবিরের সমর্থকদের মধ্যে। বিশেষ করে যেখানে কিছুদিন আগেই মেদিনীপুরে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় শামিয়ানা ভেঙে পড়ার পর প্রকাশ্যেই তীব্র বাকবিতণ্ডায় তিনি ও বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জড়িয়ে পড়েছিলেন।

গতকাল সকাল থেকেই গেরুয়া শিবিরের অন্দরে জল্পনা ছিল – দুই হেভিওয়েট নেতার এইভাবে প্রকাশ্যে কথা কাটাকাটি ও তা মিডিয়ায় প্রকাশ হয়ে যাওয়া বিজেপি কেন্দ্রীয় শীর্ষনেতৃত্ত্ব মোটেই ভালোভাবে নেয় নি। এই ধরনের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে নাকি দুই হেভিওয়েট নেতাকেই কড়া বার্তার পরিকল্পনা ছিল। তাছাড়া, আর কয়েকমাসের মধ্যেই লোকসভা নির্বাচন, সেখানে লড়াইটা একে কঠিন, তার উপরে নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহেরা এবার বাংলার উপর অত্যন্ত আস্থা রাখছেন।

এহেন পরিস্থিতিতে বাবুল সুপ্রিয়র অনুপস্থিতি নিয়ে রীতিমত সরগরম হয়ে ওঠে গেরুয়া সমর্থকদের সোশ্যাল মিডিয়া পেজ। কিন্তু এরপরে বিকেলে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে স্পষ্ট জানিয়ে দেন, সংসদে অভিযান চলছে, তাই কোনো সাংসদ উপস্থিত হতে পারে নি। ফলে, কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীকে বাদ দিয়েই বেশ কিছু বড়সড় সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলার গেরুয়া শিবিরের রাজ্য নেতৃত্ত্ব।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!