এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মৌ স্বাক্ষর হওয়ার পরেও আয়ুষ্মান ভারত থেকে রাজ্য বেরিয়ে আসায় কি হবে কেন্দ্রের ইতিমধ্যেই দেওয়া টাকার?

মৌ স্বাক্ষর হওয়ার পরেও আয়ুষ্মান ভারত থেকে রাজ্য বেরিয়ে আসায় কি হবে কেন্দ্রের ইতিমধ্যেই দেওয়া টাকার?

রাজনৈতিক স্বার্থে এবং লোকসভা ভোটের আগে সাধারণ মানুষের মন পেতে কেন্দ্র আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প নিজেদের বলে প্রচার করছে- সম্প্রতি এই অভিযোগ তুলে সেই আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে রাজ্য আর কোনো টাকা দেবে না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পরেই অনেকের মনেই তৈরি হয়েছে প্রবল শঙ্কা। কেননা যে আয়ুষ্মান ভারত এবং রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী মিলিয়ে একটি প্রকল্প স্বাস্থ্যবিমা দ্বারা উপকৃত হতেন সাধারন মানুষ, সেখানে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে রাজ্য টাকা না দেওয়ায় কি এই প্রকল্পটি ধাক্কা খাবে না?

প্রসঙ্গত, 2017 সালে রাজ্যের এই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পটি তৈরি হয়েছিল। অন্যদিকে আয়ুষ্মান ভারত তার প্রায় দেড় বছর পর অর্থাৎ গত 2018 সালের সেপ্টেম্বর মাসে তৈরি হয়েছিল। সেই দিক থেকে রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প অনেকটাই এগিয়ে। এমনকি রাজ্য এবং কেন্দ্র দুজনের মধ্যে মৌ স্বাক্ষরিত করে এই প্রকল্পটির নাম দেওয়া হয় “আয়ুষ্মান ভারত- স্বাস্থ্য সাথী”। কিন্তু সম্প্রতি সেই আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে রাজ্য কোনো টাকা দেবে না বলে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলে অনেকের মনেই তৈরি হয়েছে তীব্র জল্পনা। তাহলে কি এবার থেকে এই স্বাস্থ্য বীমার সুবিধা রাজ্যের সাধারণ মানুষ পাবেন না?

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

নবান্ন সূত্রের খবর, এর জেরে কোনো অসুবিধেই হবে না। যেমন ভাবে স্বাস্থ্য বীমা প্রকল্পের সুযোগ-সুবিধা পেয়ে আসছিলেন সাধারন মানুষ, ঠিক একইভাবে রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে তাঁরা সুবিধা পাবেন। তবে সমস্যাটা তৈরি হয়েছে অন্য জায়গায়। বেশ কয়েক মাস আগেই রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্যবীমা যোজনা বা আরএসবিওয়াই বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন অনেকে। যেখানে প্রায় 60 লক্ষ পরিবার কেন্দ্র-রাজ্যর যৌথ খরচে এই স্বাস্থ্যবীমার সুবিধা পেত। কিন্তু এখন আয়ুষ্মান ভারতে রাজ্য টাকা না দেওয়ায় সেই আয়ুষ্মান ভারতের সঙ্গে মিশে যাওয়া আরএসবিওয়াইয়ে সুবিধা পাওয়া মানুষেরা ঠিক কোথায় যাবেন তা নিয়েও উঠতে শুরু করেছে বিভিন্ন প্রশ্ন।

অন্য দিকে রাজ্যকে কেন্দ্রের তরফ থেকে এই “আয়ুষ্মান ভারত” প্রকল্পে ইতিমধ্যেই দেওয়া টাকাগুলো রাজ্যকে কেন্দ্র কি আবার ফেরত দেবে তা নিয়েও শুরু হয়েছে নানা জল্পনা।পাশাপাশি এই আরএসবিওয়াই প্রকল্পের আওতাধীন মানুষেরা অর্থ না পেয়ে যদি রাজ্য সরকারের দ্বারস্থ হয় তাহলে ভোটের মুখে বেহাল কোষাগার নিয়ে রাজ্যের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার তাদের পাশে ঠিক কতটা দাঁড়াতে পারবে সেই ভাবনা ভাবতে গিয়ে কার্যত কালঘাম ছুটতে শুরু করেছে নবান্নের কর্তাদের।

তবে এই ব্যাপারে রাজ্যের প্রশাসনিক কর্তাদের একাংশ অবশ্য বলছেন, স্বাস্থ্যসাথীতে আমরা বরাবরই স্বয়ংসম্পূর্ণ। তবে শেষ পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী এই ব্যাপারে ঠিক কী নির্দেশ দেন তার দিকেই এখন তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!