এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অযোধ্যা রামলালার হতেই মন্দিরের নকশা চূড়ান্ত করে ফেলল VHP – জানুন বিস্তারিত

অযোধ্যা রামলালার হতেই মন্দিরের নকশা চূড়ান্ত করে ফেলল VHP – জানুন বিস্তারিত

বহু প্রতিক্ষিত অযোধ্যা মামলার রায়দান হবার পরেই মন্দিরের নকশা চূড়ান্ত করে ফেলল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। গত 9 নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে রামলালাকে তাঁর জমি ফেরত দেওয়া হয়। অর্থাৎ রাম মন্দিরের জন্য প্রস্তাবিত জমিটি মন্দির প্রকল্পের জন‍্য নামাঙ্কিত করা হয়। অন্যদিকে এই জমির অন্য দাবিদার ছিলেন সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, মসজিদ বানানোর জন্য তাঁদের 5 একর জমি দেওয়া হবে। তবে অযোধ্যা মামলার রায় দানের পর স্বাভাবিকভাবেই হিন্দু সংগঠনগুলির মধ্যে খুশির মেজাজ। আর সেই খুশি আরো বাড়াতে এদিন রামলালার মন্দির নির্মাণ নিয়ে পরবর্তী পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের পক্ষ থেকে।

রাম মন্দিরের অনেকগুলি মানচিত্রকে সামনে রেখে নতুন রাম মন্দির নির্মাণ হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। রাম মন্দির করার উপকরণও অনেকাংশেই তৈরি বলে দাবি জানানো হয়েছে। যদিও রাম মন্দির পরিকল্পনায় গত কয়েক বছর ধরেই অযোধ্যাতে কাজ চলছে। প্রস্তাবিত রামমন্দিরে একটি গর্ভগৃহ থাকবে। আর এই গর্ভগৃহটি বিশেষভাবে তৈরি হবে যেখানে রামলালার মুর্তি পূজো হবে।

নতুন রাম মন্দির নির্মাণে ব্যবহার করা হবে 212 টি স্তম্ভ। দুটি পর্যায়ে 106 টি করে স্তম্ভ এক্ষেত্রে ব্যবহার করা হবে। এখনো পর্যন্ত অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ প্রকল্পে অর্ধেক পিলার প্রস্তুত হয়েছে, বাকি অর্ধেকের কাজ দ্রুত এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নকশা অনুযায়ী রাম মন্দিরের উপরে একটি শিখর তৈরি করা হবে। যেটি নবনির্মিত রাম মন্দিরটিকে একটি বিশেষ স্থান হিসেবে চিহ্নিত করবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

নবনির্মিত মন্দিরের কাঠামোটি 128 ফুট উঁচু হবে বলে জানা গেছে। প্রস্থে হবে সেটি 140 ফুট এবং দৈর্ঘ্যে হবে এটি 270 ফুট। এই বিশাল কাঠামোটি কোন ইস্পাতের দ্বারা তৈরি হচ্ছে না। আপাতত প্রস্তাবিত রাম মন্দিরে পাঁচটি প্রবেশপথ থাকবে। সেগুলি হল সিংহদ্বার, নৃত্য মন্ডপ, রান্ড মন্ডপ, পূজা ঘর এবং গর্ভগৃহ।

1990 সালের প্রথম দিক থেকেই এই রাম মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছিল। অনেক কিছুই হয়েছে তবে আরো অনেক কিছুই বাকি রয়েছে। মন্দিরটি সম্পূর্ণ নির্মাণ করতে প্রয়োজন কমপক্ষে 1.75 লক্ষ্য ঘনফুট বেলেপাথরের। পুরো মন্দিরটি তৈরি হবে পাথরে খোদাই করে যা সবার নজর কাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে মন্দিরের নকশা চূড়ান্ত করলেও দেশের সবকটি রাজনৈতিক সংগঠন নিজেদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে যথেষ্ট সাবধানী মনোভাব গ্রহণ করেছে। অন্যদিকে, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে একটি ট্রাস্ট গঠন হবে, যারা এই মন্দির নির্মাণে সমস্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। তবে কারা কারা এই ট্রাস্টি বোর্ডের অন্তর্ভুক্ত হবেন, তা এখনো পর্যন্ত ঠিক করা হয়নি। তবে সমগ্র ব্যাপারটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তত্ত্বাবধানে হবে বলেই মনে করা হচ্ছে রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে। আপাতত সমগ্র পরিস্থিতির ওপর নজর রেখেছে দেশের ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!