এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ২ বছরে কর্মহীন হয়েছেন প্রায় দুহাজার এটিএম-রক্ষী, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সুরাহা চান ব্যাঙ্ক-কর্মীরা

২ বছরে কর্মহীন হয়েছেন প্রায় দুহাজার এটিএম-রক্ষী, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সুরাহা চান ব্যাঙ্ক-কর্মীরা

দীর্ঘদিন ধরেই এরাজ্যে এটিএমে নিরাপত্তা না থাকায় ঘটে চলেছে অপরাধের মাত্রা। ব্যাঙ্ক কতৃপক্ষকে এই এটিএমে রক্ষী নিয়োগের কথা বললেও তাঁরা এই ব্যাপারে কোনো কর্নপাতই করেনি বলে অভিযোগ একাংশ ব্যাঙ্ককর্মীদের। তাই এবার যেহেতু রাজ্যের কাঁধেই রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা রয়েছে তাই এব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে মুখ্যমন্ত্রক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্মারকলিপি দিতে চলেছেন ব্যাঙ্ককর্মীরা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

তবে শুধু মুখ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দেওয়াই নয়, এব্যাপারে কোলকাতার ধর্মতলায় একটি বিক্ষোভ কর্মসূচীও নিচ্ছেন তাঁরা। জানা গেছে, বিগত দুই বছরে এরাজ্যে সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে মোট 1 হাজার 867 জনকে ছাঁটাই করেছে ব্যাঙ্ক। যার ফলে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগে ইতিমধ্যেই বিগত কদিনে কোলকাতার বেশ কিছু ব্যাঙ্কে এটিএম জালিয়াতির ঘটনা সামনে এসেছে। অভিযোগ,  বারবার কতৃপক্ষকে নিরাপত্তারক্ষী নিয়োগের কথা বললেও তাঁরা সিসিটিভির কথা বলে বিষয়টিকে এড়িয়ে গিয়েছেন। তাই এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকার যদি এই স্টেট লেভেল ব্যাঙ্ক কমিটির মধ্য দিয়ে ব্যাঙ্কগুলিকে চাপ দেয় তাহলে এই নিরাপত্তার বিষয়টি জোরদার দিতে পারে কতৃপক্ষ।

তবে এটিএমে শুধু নিরাপত্তারক্ষীর অভাব নয়; নকল টাকা নিয়েও গ্রাহকদের অনেক অভিযোগ রয়েছে। তাই এইসব নিয়ে বিক্ষোভ আন্দোলনের পাশাপাশি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকেও একটি স্মারকলিপি দিতে চায় ব্যাঙ্ক কর্মীরা। এ প্রসঙ্গে বেঙ্গল প্রভিন্সিয়াল ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক রাজেন নগর বলেন, “এটিএমে রক্ষী নেই। গত কমাস ধরে এটিএমকে কেন্দ্র করে ছোটোখাটো অপরাধের ঘটনা ঘটলেও ব্যাঙ্কের টনক নড়েনি। তাই এই দাবি নিয়ে এবার আমরা মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হব।” সব মিলিয়ে কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রাধীন হলেও কর্মী ছাটাই  ও এটিএমে নিরাপত্তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর পদক্ষেপের আশায় দিন গুনছেন ব্যাঙ্ককর্মীরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!