এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নাগরিক পরিষেবা নিয়ে তীব্র আন্দোলনের মাধ্যমেই বিধানসভায় তৃণমূলের ঘুম ছোটাতে চায় বিরোধীরা

নাগরিক পরিষেবা নিয়ে তীব্র আন্দোলনের মাধ্যমেই বিধানসভায় তৃণমূলের ঘুম ছোটাতে চায় বিরোধীরা

 

একদিকে তৃণমূল অন্যদিকে বিজেপি, বাম এবং কংগ্রেসের কাছে এই দুই রাজনৈতিক দলই এখন প্রবল বিরোধী দল। কিন্তু উত্তরবঙ্গে কংগ্রেসের গড় বলে পরিচিত মালদহে যেভাবে জনভিত্তি হারাতে বসেছে হাত শিবিরের, তাতে বিধানসভা নির্বাচনে ভালো ফল করতে গেলে এখন থেকেই তাদের কর্মসূচি নিতে হবে।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ যখন এই দাবি করছে, তখন আগামী বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করেছে জাতীয় কংগ্রেস। যেনতেন প্রকারেণ নিজেদের গড় মালদহে যাতে তৃণমূলকে চাপে রাখা যায় এবং তারা ভালো ফল করতে পারে, তার জন্য এখন থেকেই নানা কর্মসূচি নিতে শুরু করেছে হাত শিবির।

বস্তুত, সদ্যসমাপ্ত 2019 এর লোকসভা নির্বাচনে দক্ষিণ মালদহ লোকসভা কেন্দ্র কংগ্রেস দখল করেছে। কিন্তু নিজেদের শক্তঘাঁটি হিসেবে পরিচিত মালদহের উত্তর মালদা লোকসভা কেন্দ্র তারা দখল করতে পারেনি। সেখানে জয়লাভ করেছেন বিজেপি প্রার্থী খগেন মুর্মু। যার ফলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ এই জেলায় কংগ্রেসের শক্তিক্ষয় হচ্ছে বলে দাবি করেছিল। আর এই পরিস্থিতিতে বিধানসভাকে পাখির চোখ করে একদিকে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল আর অন্যদিকে বিজেপিকে চাপে রাখতে নানা কর্মসূচি নিতে শুরু করেছে কংগ্রেস।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, আগামী 14 নভেম্বর মালদার ইংলিশবাজারের কালেক্টরেট বিল্ডিংয়ের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে হাত শিবির। যেখানে ব্লক সভাপতি এবং পর্যবেক্ষকদের সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ঠিক কী কারণে কংগ্রেসের তরফ এই কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে! জানা গেছে, বিজেপির অপশাসন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিতে জনগণের নাভিশ্বাস, নোটবন্দি, এনআরসি, রেশন কার্ড, ভোটার কার্ড, আধার কার্ড সংশোধনের নামে মানুষের হয়রানির বিরোধিতা সহ বিভিন্ন ইস্যুতে প্রতিবাদ জানাবে তারা।

আর হঠাৎ করে জেলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ইংলিশবাজার কালেক্টর বিল্ডিংয়ের সামনে এই প্রতিবাদ কর্মসূচি নানা জল্পনা বাড়াচ্ছে রাজনৈতিক মহলের। অনেকেই বলছেন, লোকসভায় নিজেদের পর্যুদস্ত হওয়াটাকে ভালোমতো মেনে নিতে পারেনি কংগ্রেস। আর তাইতো গনি গড় হিসেবে পরিচিত মালদহে নিজেদের অস্তিত্ব রাখতে বিধানসভায় ভালো ফল করবার জন্য এখন থেকেই রাস্তায় নামতে চলেছে তারা।

এদিন এই প্রসঙ্গে মালদহ জেলা কংগ্রেসের সভাপতি মোস্তাক আলম বলেন, “কেন্দ্র সরকারের একাধিক জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে আমাদের দল রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কেন্দ্র সরকার প্রতিহিংসার রাজনীতি করছে। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা খুবই শোচনীয়। ব্যাংকের সংযুক্তিকরণের নামে কর্মী ছাঁটাই করা হচ্ছে। সাধারণ মানুষের জীবন-জীবিকা সংকটাপন্ন। এইসব নানা নাগরিক অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতেই জেলা কংগ্রেস বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দিয়েছে।” সব মিলিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে গিয়ে এবার নিজেদের অস্তিত্ব জানান দিতে মালদহে ময়দানে নামতে শুরু করল কংগ্রেস।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!