এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > ভোটে লিড পেতে কোটি টাকার পুরস্কার ঘোষণা আসানসোলের তৃণমূল মেয়রের, বিতর্ক তুঙ্গে

ভোটে লিড পেতে কোটি টাকার পুরস্কার ঘোষণা আসানসোলের তৃণমূল মেয়রের, বিতর্ক তুঙ্গে

আসন্ন লোকসভা ভোটে লীড পেতে কোটি টাকার পুরস্কারের টোপ ফেলল তৃণমূল। ভোটে লীড দিতে পারলে এবার ভারী পরিমান টাকা পুরস্কার হিসাবে দেওয়া হবে বলেই জানিয়ে দিলেন আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি। জামুরিয়ায় কর্মীসভায় সম্প্রতি তিনি ঘোষণা করেন,লিড দিতে পারলেই মিলবে ওয়ার্ড প্রতি অতিরিক্ত টাকার কাজের বরাত। লিড অনুযায়ী থাকছে প্রথম,দ্বিতীয়,তৃতীয় পুরস্কার।

পাশাপাশি সন্তোষজনক লিড দিতে না পারলে শাস্তির ব্যবস্থাও করা হয়েছে। শাস্তিস্বরূপ কাউন্সিলরদের কাছ থেকে পদ কেড়ে নেওয়া হবে বলে জানালেন তিনি। প্রসঙ্গত,শিল্পশহর লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থীকে কেন্দ্র করে দলীয় মনোমালিন্যের আশঙ্কা রয়েছে। অভিনেত্রী মুনমুন সেনকে বাঁকুড়া থেকে আসানসোলের প্রার্থী করেও এখনো নিশ্চিত হতে পারছে না তৃণমূল। সেটা দিনদুয়েক আগে প্রকাশ্য জনসভায় জিতেন্দ্র তিওয়ারিও মন্তব্য শুনেই বোঝা গিয়েছে। বলেছিলেন,’পিছন থেকে ছুরি মারলে ছেড়ে কথা বলা হবে না।’

এরপর মঙ্গলবার ভোটে জিততে কাউন্সিলরদের জন্যে উন্নয়নের পুরস্কার ঘোষণা করলেন। জানালেন,’ওয়ার্ডে পাঁচ হাজার লিড দিতে পারলে মিলবে এক কোটি টাকার অতিরিক্ত কাজ। তিন হাজারের বেশি লিড হলে ৫০ লক্ষ। এবং ৩০ লক্ষ দেওয়া হবে ২ হাজারের বেশি লিড হলে।’ পাশাপাশি এটাও জানিয়ে দেওয়া হয় যে ওয়ার্ডে কাউন্সিলররা সন্তোষজনক লিড দিতে পারবে না সেখানকার কাউন্সিলরকে অবিলম্বে ইস্তফা দিতে হবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

ভোটে লীড পাওয়ার জন্যে তৃণমূলের এ ধরণের সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করলেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দাবী,নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে তৃণমূল। তাই এর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হতে ইচ্ছুক তাঁরা। ওদিকে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীও এ প্রসঙ্গে তৃণমূলকে তীব্র আক্রমণ করলেন। বললেন,”অপদার্থ, অসভ্য তৃণমূল হেরে গিয়েছে। পায়ে ধরতে ভোট চাইতে হচ্ছে।” ওদিকে সাফাইতে জিতেন্দ্র তিওয়ারি বলেছেন,তাঁর বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করছে বিরোধীরা। পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমও একইভাবে বলেছেন,’এস্টিমেট বলেছে। অর্ধসত্য প্রচার করা হচ্ছে।’

উল্লেখ্য,তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের আগে থেকেই রাজ্য রাজনীতির অন্দরে একটা জল্পনা বহুদিন ধরেই দানা পাকাচ্ছিল যে জিতেন্দ্র তিওয়ারি এবার আসানসোল লোকসভা আসনে টিকিট পাচ্ছেন। কিন্তু ঘটনাক্রমে সেই জল্পনাকে মিত্যে প্রমাণ করে দিয়ে প্রার্থী হলেন মুনমুন সেন। আর তাতেই প্রশ্ন তৈরি হল যে আসানসোলের তৃণমূলশিবিরের অন্দরে অন্তর্ঘাত নেই তো? গত লোকসভা ভোটে আসানসোলের তৃণমূল প্রার্থী দোলা সেন পরাজিত হলে সেবারও কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছিল স্থানীয় কয়েকজন তৃণমূল নেতাকে। এবারও সেই অতীতের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে কিনা তা নিয়ে বেশ উদ্বেগে রয়েছে জোড়াফুল শিবির। তাই এবার আগে থেকেই সতর্কতা জারি করা হয়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!