এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > অসুস্থ শরীরে পারবেন না দৌড়ঝাঁপ করতে! হেভিওয়েট তৃণমূল মন্ত্রীর গড় সামলাবেন তার ছেলেই

অসুস্থ শরীরে পারবেন না দৌড়ঝাঁপ করতে! হেভিওয়েট তৃণমূল মন্ত্রীর গড় সামলাবেন তার ছেলেই

Priyo Bandhu Media


গোটা উত্তরবঙ্গের উন্নয়নের দায়িত্ব রয়েছে তার কাঁধে। তবে কোচবিহার জেলার নাটাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক তথা রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রীর হঠাৎই অসুস্থ হয়ে যাওয়া রীতিমতো চিন্তায় ফেলছিল গোটা তৃণমূল পরিবারকে। তবে তিনি চিকিৎসকদের পরামর্শ নিয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও সক্রিয়ভাবে রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না রবীন্দ্রনাথ ঘোষ।

তবে তিনি অংশগ্রহণ করতে না পারলেও তার ছেলে পঙ্কজ ঘোষ এখন বাবার কাজকর্ম করতে শুরু করেছেন। জানা যায়, গত 15 নভেম্বর কোচবিহারে নিজের বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েন রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী। আর এরপরই তাকে কোচবিহারের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হলে পরে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে চাপিয়ে কলকাতার এসএসকেএমে নিয়ে যাওয়া হয়। অবশেষে কিছুটা সুস্থ হয়ে বুধবার কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি হয়ে কোচবিহারের নিজের বাড়িতে ফেরেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

নাটাবাড়ি তৃণমূল বিধায়ক তথা রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী বাড়ি ফেরার পর তিনি তার বাড়িতে সাক্ষাত প্রার্থীদের ভিড় পড়ে যায়। তবে দলের কর্মী থেকে সাক্ষাত প্রার্থীদের সঙ্গে দেখা করলেও এখনই সেইভাবে রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যোগ দিতে পারবেন না রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তবে তিনি যোগ না দিলেও ছেলে পঙ্কজ ঘোষকে ময়দানে নামিয়ে দিয়েছেন মন্ত্রী। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই রবীন্দ্রনাথবাবুর রাজনৈতিক কর্মসূচিগুলোতে যোগদান করতে শুরু করেছেন তার ছেলে পঙ্কজ ঘোষ।

এদিন এই প্রসঙ্গে রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “নাটাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রে বর্তমানে আমার ছেলে পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচিগুলো দেখছে। আমি তাকে লিস্ট দিয়ে দিচ্ছি। এদিন দেওয়ানহাটে মিছিল আছে। সেখানে পঙ্কজ যাবে। বিধানসভা কেন্দ্রের ক্ষেত্রেও ছেলেকে নির্দেশ দিচ্ছি। সে সব দেখছে। এদিন সকাল থেকে অনেকেই আমার সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন। আমি দেখা করছি। তবে বেশি কথা বলিনি। সব ফোনও ধরছি না।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলছেন, লোকসভা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীকে জেতাতে না পারায় সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল সেই রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে। সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরে তাঁর মন্ত্রীপদও কেড়ে নেওয়া হতে পারে বলে জল্পনা ছড়িয়েছিল। আর এমতাবস্তায় তিনি অসুস্থ হয়ে যাওয়ার পর যাতে তিনি ময়দান না ছাড়েন, তার জন্য দলের কর্মসূচিতে ছেলেকে নামিয়ে পরোক্ষে তিনি দলের হয়েই কাজ করে যাবেন বলে বার্তা দিলেন রবিবাবু বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!