এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে নিয়ে মমতাকে চরম কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের, গুঞ্জন চরমে!

অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে নিয়ে মমতাকে চরম কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের, গুঞ্জন চরমে!

দিল্লী বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হওয়ার পর দেখা গেছে যে, এবারও সেখানে বিজেপির অভিষ্ট লক্ষ্য পূরণ হয়নি। বহু চেষ্টা করেও অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টিকে পরাজিত করতে পারেনি ভারতীয় জনতা পার্টি। তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতা দখল করেছে আম আদমি পার্টি। মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। আর বিরোধী মহাজোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বন্ধু বলে পরিচিত অরবিন্দ কেজরিওয়ালের শপথ গ্রহণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ না করা নিয়ে এখন নানা মহলে তৈরি হয়েছে গুঞ্জন।

অনেকেই দাবি করতে শুরু করেছেন, তাহলে কি বিরোধী জোটে ভাঙন ধরতে শুরু করল! আর তাই কি নিজের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানালেন না অরবিন্দ কেজরিওয়াল‌! এবার এই ঘটনা নিয়ে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রীকে ভাষায় আক্রমণ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সূত্রের খবর, এদিন উত্তর 24 পরগনার অশোকনগরে আগামী পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিজেপির পক্ষ থেকে একটি সভার আয়োজন করা হয়। আর সেখানেই উপস্থিত হয়ে এই ব্যাপারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন দীলিপবাবু।

তিনি বলেন, “যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিল্লির নির্বাচনে কেজরিওয়ালকে জেতানোর জন্য উপোস করলেন, মানত করলেন, খিচুড়ি খাওয়ালেন, সেই কেজরিওয়াল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভুলে গেলেন! তার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে পর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডাকলেন না। বরং এখন কেজরিওয়াল মোদি মোদি করছেন।” বিশ্লেষকরা বলছেন, সম্প্রতি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। আর শপথ নেওয়ার পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সহযোগিতা প্রার্থনা করেছেন তিনি। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে ছড়িয়ে পড়েছে গুঞ্জন।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রবল বিরোধী বিজেপির প্রধানমন্ত্রীর কাছে তিনি হঠাৎ সহযোগিতা চাইলেন কেন, সেই ব্যাপারে যখন নানা মহলে জল্পনা চলছে, তখন সেই কথা তুলে ধরে বিরোধী মহাজোটে ফাটল ধরানোর চেষ্টা করে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জোর কটাক্ষ করে শোরগোল তুলে দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের। এদিন রাজ্যে অস্ত্রের কারখানার বাড়বাড়ন্ত হচ্ছে বলেও সরব হন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। পাশাপাশি অমিত শাহের ডাকা বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যাওয়া নিয়েও মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ।

তিনি বলেন, “যদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অমিত শাহের ডাকে ওড়িশা যান, তাহলে ভাল। হয়ত কাল সকালে আবার বলবেন, যাব না। কারণ তার মাথার ঠিক নেই তো।” অন্যদিকে রাজ্যপালের সাথে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক নিয়েও এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করেন দীলিপবাবু। তিনি বলেন, “আরো আগে এই বৈঠক হলে ভালো হত। এতদিন অপেক্ষা করতে হল কেন! তাতে রাজ্যের মানুষের ভালো হবে।” এদিকে রাজ্যে মহিলারা একেবারেই সুরক্ষিত নয় বলে মহিলা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাত নেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। সব মিলিয়ে পৌরসভা নির্বাচনের প্রচার করতে গিয়ে নানা বিষয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে শোরগোল তুলে দিলেন দিলীপ ঘোষ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!