এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শুভ্রাংশু কি এখন ‘গলার কাঁটা’ তৃণমূলের? দলীয় নেতার বক্তব্যে বাড়ল ধোঁয়াশা

শুভ্রাংশু কি এখন ‘গলার কাঁটা’ তৃণমূলের? দলীয় নেতার বক্তব্যে বাড়ল ধোঁয়াশা

মুকুল রায় বিজেপিতে যোগ দেবার পর থেকেই তৃণমূলের অন্দরে জোর জল্পনা শুরু হয়েছিল মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু রায়কে নিয়ে, যা এখনো অব্যাহত। পিত-পুত্রের দুদলে থাকার ব্যাপারটাকে অনেকে গট-আপও বলছেন। এবার এই নিয়ে সংশয়প্রকাশ করলেন শাসকদলের ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিং, যিনি বর্তমানে কাঁচরাপাড়ায় দলের ভাঙ্গন আটকানোর গুরু দায়িত্বে রয়েছেন দলের তরফে এবং যিনি মুকুল রায়ের বিরোধী গোষ্ঠী হিসাবেই পরিচিত রাজনৈতিক মহলে।
প্রসঙ্গত কয়েকদিন আগেই সংবাদমাধ্যমে নিজের প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কা করেছিলেন শুভ্রাংশু, শুধু তাই নয় এই নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকেও চিঠি লেখেন তিনি। শুভ্রাংশু লিখেছিলেন, আমার অবস্থা বিকাশকাকুর (প্রয়াত তৃণমূল যুবনেতা বিকাশ বসু) মতো হবে না তো? একজন শাসকদলের বিধায়ক হয়ে শুভ্রাংশু যদি প্রাণ সংশয়ে ভোগেন তবে অন্যদের সুরক্ষা কতটা – রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন উঠেতে বাধ্য এরফলে। আর তাই দলের বিধায়ক হয়েও দলের নামে কুৎসা করছে শুভ্রাংশু – এবার এই তত্ত্ব খাড়া করে অর্জুন সিং এদিন বলেন, ও আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দলকে অপমান করছে। ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের আইনশৃঙ্খলা যথেষ্ট ভালো। ওর কিছু বলার থাকলে দলের অন্দরে বলুক। প্রকাশ্যে বলে সিন ক্রিয়েট করার চেষ্টা করছে। যতক্ষণ ও তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক ততক্ষণ ও দলের সম্পদ। বীজপুরেও আইনশৃঙ্খলার কোনও অবনতি হয়নি।
এখানেই থেমে না থেকে অর্জুনবাবুর আরো বক্তব্য, ওর বাবা মুকুল রায় আমাদের দলের সাংসদ অভিষেক সম্পর্কে লাগাতার কুৎসা করছেন। দলের কর্মী হিসেবে আমরা সেই বক্তব্যের পালটা রাজনৈতিক মোকাবিলা করছি। ও তো তৃণমূল কংগ্রেসের একজন বিধায়ক। ও কেন চাপ নিচ্ছে? ও যদি এধরনের মন্তব্য করে তাহলে বুঝতে হবে বাপ-ছেলের মধ্যে কোনও বড় গটআপ চলছে। আর এরফলে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মনে প্রশ্ন – তাহলে কি শুভ্রাংশু রায় এখন গলার কাঁটা হয়ে রয়েছেন তৃণমূলে? কেননা যে দাবী অর্জুন বাবু নিজে করেছেন, সেই ‘দলের ভিতরে’ আলোচনা না করে এই নিয়ে তিনি নিজে কেন প্রকাশ্যে বলছেন?

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!