এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ফিরছেন অরুন,কাজ সামলাচ্ছেন পীযুষ-অর্থমন্ত্রক নিয়ে নির্বাচনের আগে মোদীর মাস্টারস্ট্রোক

ফিরছেন অরুন,কাজ সামলাচ্ছেন পীযুষ-অর্থমন্ত্রক নিয়ে নির্বাচনের আগে মোদীর মাস্টারস্ট্রোক

কিনডির সফল প্রতিস্থাপনের তিন সপ্তাহ পর নিজের বাড়িতে ফিরলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। আর বাড়ি ফিরেই ট্যুইটারে কৃতজ্ঞতা জানালেন তাকে সুস্থ্য করে তোলা চিকিৎসকদের  টিমকে। এবং নিজের বাড়ি ফিরতে আসার উচ্ছ্বাসও ব্যক্ত করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে দায়িত্ব থেকে মেলেনি নিস্তার। আপাতত তিনি ২ নম্বর কৃষ্ণ মেনন মার্গের নিজস্ব বাসভবনে বসে ভিডিও ক্যামেরার মাধ্যমে নর্থ মন্ত্রকের ফাইল দেখার কাজ করছেন অর্থমন্ত্রী। কাজ দেখার পাশাপাশি সকালে নিয়মিত হাঁটছেনও তিনি। একজন চিকিৎসক মাস্ক পরে তাঁর পেছনেই থাকছেন। তবে চিকিৎসক তাকে হাঁটতে মানাই করেছেন এখন। কারণ হাঁটলে বাড়তে পারে সংক্রমণের সম্ভাবনা। এছাড়া ওষুধ সেবন এবং রুটিনমাফিক চেকআপের জন্য ডাক্তার নার্সরা হাজির থাকছেন ওখানে। মাঝে স্ত্রী যাচ্ছেন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে। তবে একদমই কম দেখা মিলছে তাঁর। কারণ ডাক্তারেরা আপাতত পরিবারের কাউকেই অরুণবাবুর কাছে যেতে বারণ করেছেন। খবর পাওয়া গেছে অরুণ জেটলির শারীরিক অবস্থায় উন্নতি হচ্ছে আস্তে আস্তে।

তবে মোদীজি বলেই দিয়েছেন সম্পূর্ণ সুস্থ না হওয়া অব্দি তিনি ঘরে বসেই ডিজিট্যাল প্রযুক্তির মাধ্যমে ফাইল সই করবেন। তারপর সুস্থ হলে তিনি নর্থ ব্লকে নিজের অফিসে বসে কাজ সামলাবেন। ওদিকে অর্থমন্ত্রক সূত্রে জানা যাচ্ছে যে, জেটলির অনুপস্থিতিতে তাঁর কার্যভার সামলাচ্ছেন পীযূষ গোয়েল।  অরুণ হলেন ‘মিনিস্টার উইদাউট পোর্টপোলিয়ো’। কিন্তু এর আগে সুষমা স্বরাজের যখন কিনডি ট্যান্সপ্ল্যান্ট হয়েছিলো তখন কিন্তু এই ‘মিনিস্টার উইদাউট পোর্রপোলিও’ করা হয়নি। তিনি খাতায় কলমে বিদেশমন্ত্রী থাকলেও তাঁর দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীই। কিন্তু অর্থমন্ত্রীর অসুস্থ্য হওয়ার পর ওনার দায়িত্বটা চাপানো হয় পীযূষ গোয়েলের উপর। লোকসভার ভোটের আগে দ্রুত ফাইল ছাড়াটাই বড় কাজ। এক্ষেত্রে অরুন জেলটির ব্যক্তিগত সচিব এবং অন্যান্য কর্মী কাউকেই বদল করেননি গোয়েল। তিনি নিজের রেলমন্ত্রকের কাজ সামলানোর পাশাপাশি অফিসেই ডেকে পাঠান অর্থমন্ত্রকের অফিসারদের।  তারপর তাঁর কাছ থেকেই ফাইল পৌছায় নর্থ ব্লকের অফিসে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তবে প্রথমদিকে রাজনৈতিকমহলের অভিজ্ঞদের একাংশ ভেবেছিলেন যে পীযূষ গোয়েলই হয়তো স্থায়ীভাবে অর্থমন্ত্রক সামলাবেন এরপর থেকে। কারণ অরুণ জেটলির শারীরিক অসুস্থ্যতার কারণে তাঁর পক্ষে হয়তো আর কার্যভার নেওয়া সম্ভব হবে না। জিএসটি,নোটবদলি থেকে ব্যাঙ্ক দুর্নীতি-মূল্যবৃদ্ধি সবক্ষেত্রে সামলাতে হয়তো মোদীজি গোয়েলকেই ভরসা করবেন। কিন্তু ইতিমধ্যে আবার ফিল্ডে নেমে পড়তেন  আনুষ্ঠানিক অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলি। তার ফলে দুজন ব্যক্তি আপাতত সামলাচ্ছেন অর্থ মন্ত্রক। পীযূষ গোয়েল সরকারিভাবে মুম্বাই গিয়ে ব্যাঙ্ক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করছেন,বা কখনো রেলমন্ত্রকের অফিসে ডেকে পাঠাচ্ছেন আমলাদের। আর এদিকে অর্থসচিব এবং অন্যান্য কর্তাদের ডেকে অরুণ জেটলিও বুঝতে চাইছেন রিজার্ভ ব্যাঙ্কে সুদ বৃদ্ধির প্রভাবটা। তবে আন্দাজ করা হচ্ছে,অরুণজী সম্পূর্ণ সুস্থ হলে পীযূষ গোয়েলকে অর্থ মন্ত্রকের দায়িত্ব থেকে নিষ্কৃতি দেওয়া হবে। এমনটাই জানা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় রাজনীতির সূত্র থেকে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!