এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > অর্জুন গড়ে যুব তৃণমূলের পার্টি অফিসে ভাঙচুর, থানায় অভিযোগ দায়ের বিজেপির বিরুদ্ধে

অর্জুন গড়ে যুব তৃণমূলের পার্টি অফিসে ভাঙচুর, থানায় অভিযোগ দায়ের বিজেপির বিরুদ্ধে

কয়েকদিন হলো তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন অর্জুন সিং আর তার পরেই তাঁকে বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী করেছে , আর তার এই দলত্যাগ নিয়ে জোর চাপানউতোর এখনো অব্যাহত।

আর এর মধ্যেই যুব তৃণমূলের পার্টি অফিসে ভাঙচুর হলো উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার 17 নম্বর ওয়ার্ডের নবাবগঞ্জে। যার জেরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়। তৃণমূলের তরফ থেকে দাবি করা হচ্ছে যে, এলাকার বিজেপি নেতাদের মদতে বিজেপিবিজেপি কর্মীরাই এই কাজ করেছে। আর এই নিয়েই নোয়াপাড়া থানায় আজ অভিযোগ দায়ের করেছে তৃণমূল ।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে , গতরাতে নবাবগঞ্জের যুব তৃণমূলের কার্যালয়ে আসে একদল দুষ্কৃতী । তাদের কাছে আগ্নেয়াস্ত্র ছিল বলে দাবি তৃণমূলের তরফে। অভিযোগ, দুষ্কৃতীরা হুমকি দেয় যে ওই পার্টি অফিসে যেন তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের আর দেখতে না যায়। তাছাড়া তাদেরকে পার্টি অফিস ছেড়ে চলেও যেতে বলে দুষ্কৃতীরা। আর তারপরেই পার্টি অফিস তারা ভাংচুর চালায় এমনটাই অভিযোগ তৃণমূলের। ভেঙে ফেলা হয় চেয়ার, টেবিল । শুধু পার্টি অফিসে ব্যাপক ভাঙচুরই নয়, তাদের দলীয় পতাকা ও দলীয় পোস্টার ছিঁড়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। বাধা দিলে প্রাণে মারার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলেও দাবি তৃণমূলের তরফে।

আর এই নিয়ে উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার 17 নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা স্থানীয় তৃণমূল নেত্রী শান্তি নাথ অত্যান্ত জোর দিয়ে দাবি করেন যে, “হামলাকারীরা সকলেই বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতী তাদের হাতে আগ্নেয়াস্ত্র ছিল সেই কারণে ভয়ে কেউ সামনে আসতে সাহস পায়নি ।”

যদিও, তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ব্যারাকপুরের বিজেপি নেতা ও প্রার্থী অর্জুন সিং।
এই নিয়ে তিনি বলেন, “সম্পূর্ণ মিথ্যা অভিযোগ করছে তৃণমূল, প্রতিদিন এরা মিথ্যে অভিযোগ করে মামলা করছে। তৃণমূলের পায়ের তলা থেকে মাটি সরে গেছে আর তাই এইসব করছে।” তিনি এই নিয়ে প্রশ্ন তোলেন যে, , “ওই এলাকায় আমরা দলীয় পতাকা লাগাতে পারছি না । তাহলে কীভাবে আমরা ওখানে গিয়ে ভাঙচুর চালাব ?।”

যাই হোক ভোটের আগে এহেন ঘটনায় যে ফের উত্তেজনা বাড়বে ব্যারাকপুরে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!