এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ফের নজরে অর্জুন সিং, নবান্ন থেকে শুরু নয়া তদন্ত

ফের নজরে অর্জুন সিং, নবান্ন থেকে শুরু নয়া তদন্ত

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে সরব হতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যের শাসকদলকে। আর এবার কর ফাঁকি এবং অনিয়মের অভিযোগ থাকা তিনশোর বেশি কোম্পানির সাথে সেই অর্জুন সিংহের যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠতে শুরু করল।

প্রসঙ্গত, রাজ্যের রাজস্ব ফাঁকি রুখতে ইডির ধাঁচে নবান্নের তরফে ডিআরআইই তৈরি করা হয়েছিল। সম্প্রতি এই ব্যাপারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে 600 টি সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ার সাথে সাথেই তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। যেখানে এই প্রতিটি সংস্থার বিরুদ্ধে কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ আসার পাশাপাশি ব্যারাকপুরে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহকে প্রায় 800 কোটি টাকার মতো শেয়ার দেওয়া হয় বলে অভিযোগ আসে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে এই অভিযোগ আসার পরই রাজ্যের কর্মকর্তারা ইতিমধ্যেই দুশোর বেশি সংস্থায় হানা দিয়েছেন।কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের বিরুদ্ধে সেইভাবে কোনো অভিযোগ পাওয়া না গেলেও এইসব সংস্থার সঙ্গে অর্জুন সিংহের অভিযোগ রয়েছে বলে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে সর্বত্র। তবে শুধু অর্জুন সিংহই নয়, ওই 55টি কোম্পানিতে সুনিল সিংহ, সুশীল সিংহ নামে দুই ব্যক্তির নাম রয়েছে বলেও জানা গেছে।

এই প্রসঙ্গে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং বলেন, ” আমার নামে কোনো কোম্পানি নেই। নোটিশ এলে তার জবাব যাবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভাইপোর কোম্পানির ব্যাপারে এবার ভাবুন। আর কিছুদিনের মধ্যেই মমতাদি তা বুঝতে পারবেন।” এদিকে বিজেপির একাংশের দাবি, আসলে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়ে শাসকদলের পক্ষ থেকে এই চক্রান্ত করা হচ্ছে।

তবে এই সমস্ত কোম্পানিতে জিএসটি না থাকায় তারা সেই সমস্ত কোম্পানিতে কোনো কারবার করে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন অর্জুন ঘনিষ্ঠ অনুগামীরা। সব মিলিয়ে এবার কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে কোম্পানীগুলোর বিরুদ্ধে নবান্নের তরফে তদন্ত প্রক্রিয়া নির্দেশ দেওয়া হলে বিজেপির হেভিওয়েট সাংসদকে কাবু করতে শাসকদলের কৌশল আদৌ কাজে দেয় কিনা, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!