এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > অর্জুন সিংয়ের গড়ে ক্রমশ ছড়াচ্ছে ডেঙ্গু আতঙ্ক! জ্বরে কাবু হয়ে হাসপাতালে কাউন্সিলরের স্ত্রী-পুত্র!

অর্জুন সিংয়ের গড়ে ক্রমশ ছড়াচ্ছে ডেঙ্গু আতঙ্ক! জ্বরে কাবু হয়ে হাসপাতালে কাউন্সিলরের স্ত্রী-পুত্র!

এবার কি তাহলে মশাই চরম অস্বস্তিতে ফেলবে রাজ্য সরকারকে? বর্ষা শুরু হতেই ফের ডেঙ্গুর ভ্রুকুটি দেখা দিল রাজ্যে। গত শুক্রবারই শিলিগুড়িতে গিয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেছিলেন, “শিলিগুড়িতে কোনো ডেঙ্গু নেই।” স্বাভাবিকভাবেই বাম পরিচালিত পুরসভায় এই ডেঙ্গু ভয়াবহ রুপ না নিলেও এবার তৃনমূল পরিচালিত ভাটপাড়া পুরসভায় সেই ডেঙ্গুতেই মৃত্যুর খবরে ছড়াচ্ছে চাঞ্চল্য।

 সূত্রের খবর, গাড়ুলিয়ার 5 নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা শিবানী ঘটক গত 19 আগষ্ট এই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। অন্যদিকে সেই পুরসভারই 4 নম্বর ওয়ার্ডের গীতা রায় গত 22 আগষ্ট মারা গেলে পরিবারের তরফ থেকে দাবি করা হয় যে তিনি ডেঙ্গুতেই মারা গেছেন। তবে হাসপাতাল কতৃপক্ষ তা মানতে নারাজ। কিন্তু তারা না মানলে কি হবে ইতিমধ্যেই এই ডেঙ্গুতে জনমানসে প্রবল আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। তবে শুধু সাধারন মানুষই নন, এই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ভাটপাড়া পুরসভার 4 নং ওয়ার্ডের কংগ্রেস কাউন্সিলর গৌতম বসুর ছেলে এবং স্ত্রী।

বাড়ি বাড়ি গিয়ে সচেতন করার পরেও  জমা জলেই এই মশার লার্ভা সৃষ্টি হয়ে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ বলে জানান এই গৌতম দাস। তবে আগের থেকে এখন পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রনে এসেছে। পুরসভা সব ব্যাবস্থা নিচ্ছে বলে জানান ভাটপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যান তথা বিধায়ক অর্জুন সিং। একই কথা বলেছেন গাড়ুলিয়ার চেয়ারম্যান তথা বিধায়ক সুনীল সিংও।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে এই গাড়ুলিয়ায় ডেঙ্গুতে দুজনের মৃত্যু হয়েছে এই কথা শুনে সুনীল সিং বলেন, “একজনেরই ডেঙ্গুতে মৃত্যু হয়েছে। আমরা কোনোও মৃত্যুকেই ছোট করে দেখছি না।” এই ডেঙ্গু মোকাবিলায় বাসিন্দাদের সচেতন করতে এবং মশা মারার স্প্রে ব্যাবহারও করার কাজও শুরু করা হয়েছে বলে এদিন জানান তিনি। সব মিলিয়ে এবার মশার প্রকোপে অস্বস্তিতে তৃনমূল পরিচালিত ভাটপাড়া এবং গাড়ুলিয়া পৌরসভা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!