এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > এবার নিজের রাজ্যেই আটকে দেওয়া হল অপর্ণা সেনদের! প্রশ্নের মুখে মুখ্যমন্ত্রীর বুদ্ধিজীবী-প্রীতি!

এবার নিজের রাজ্যেই আটকে দেওয়া হল অপর্ণা সেনদের! প্রশ্নের মুখে মুখ্যমন্ত্রীর বুদ্ধিজীবী-প্রীতি!

বিগত বাম সরকারের আমলে পরিবর্তনের পক্ষে সওয়াল করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে রাস্তায় নামতে দেখা দিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের বুদ্ধিজীবীদের। বর্তমানে রাজ্যে পরিবর্তন এসেছে। আর পরিবর্তনের তৃণমূল সরকারের আট বছরও হয়ে গিয়েছে। কিন্তু বর্তমান তৃণমূল সরকারের আমলে বুদ্ধিজীবীদের স্বাধীনতা হ্রাস পাচ্ছে বলে মাঝেমধ্যেই দাবি করতে দেখা গেছে একাংশকে। তবে শুধু মুখের কথায় নয়, এবার কাজেও যেন সেই বুদ্ধিজীবীদের বাধা দেওয়ার ঘটনা প্রত্যক্ষ করা গেল এরাজ্যে।

সূত্রের খবর, শনিবার কোচবিহার জেলার দিনহাটার করোলা নামক ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায় গিয়েছিলেন অভিনেত্রী অপর্ণা সেন, বোলান গঙ্গোপাধ্যায় সহ বেশ কয়েকজন বুদ্ধিজীবীরা। অভিযোগ, সেখানেই তাঁরা সাবেক ছিটমহলে ঢোকার চেষ্টা করলেই তাঁদের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর তরফ থেকে বাধা দেওয়া হয়। আর এতেই সরব হন অপর্ণাদেবী, বোলাদেবীরা। কেন তাঁদের এইভাবে বাধা দেওয়া হচ্ছে, তা জানতে চান তারা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

জানা যায়, এদিন অপর্ণা সেন সহ বেশ কিছু বুদ্ধিজীবী রেশন কার্ড এবং মানুষের বেঁচে থাকার জন্য সীমান্তবর্তী এলাকায় প্রাথমিক চাহিদাগুলো রয়েছে কিনা, তার খোঁজখবর নিতেই সেখানে গিয়েছিলেন। কিন্তু কেন সেখানে তাঁদের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর তরফে ঢুকতে বাধা দেওয়া হল, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। অনেকেই বলছেন, অপর্ণা সেন যে ভারতীয় নাগরিক, এই ব্যাপারে তো কারও কোনো সন্দেহ নেই! তাহলে কেন তাঁকে বাধা দেওয়া হল!

এটা কি মানুষের গণতন্ত্রে বা স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ নয় – প্রশ্ন তুলছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ থেকে বিরোধীরা! প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই জিয়াগঞ্জের পরিবার সহ শিক্ষকের নৃশংস হত্যার পরে অপর্ণাদেবী সরব হয়েছিলেন। তিনি সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে বার্তা দেন – এই ব্যাপারে পদক্ষেপ নেবার। কিন্তু, এবার রাজ্যের সীমান্তবর্তী এলাকায় বুদ্ধিজীবীদের ঢুকতে দেওয়া নিয়ে এখন নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বিরোধীদের প্রশ্ন – যে বুদ্ধিজীবীদের রাস্তায় নেমে আন্দোলনের ফলে ক্ষমতায় এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় – সেই বুদ্ধিজীবীদেরই এখন নিজেদের রাজ্যেই আটকে দিতে হচ্ছে কেন?

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!