এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অনুব্রত মণ্ডলের ভয়েই কি বীরভূমে ঢুকলেন না অমিত শাহ? বিস্ফোরক অভিযোগ দিদির প্রিয় ‘কেষ্ট’ ভাইয়ের

অনুব্রত মণ্ডলের ভয়েই কি বীরভূমে ঢুকলেন না অমিত শাহ? বিস্ফোরক অভিযোগ দিদির প্রিয় ‘কেষ্ট’ ভাইয়ের

রাজ্য রাজনীতিতে তৃণমূলকে সরানো বিজেপির কাছে মূল চ্যালেঞ্জ হলেও বীরভূমের তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে রাজনৈতিকভাবে ঠান্ডা করার কৌশল নিচ্ছেন গেরুয়া শিবিরের নেতারা। আর তাই তো বিভিন্ন সময় বাংলায় যে সমস্ত জায়গাকে সভাস্থল হিসেবে চিহ্নিত করেছে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব, তার মধ্যে অন্যতম হিসেবে রাখা হয়েছে সেই অনুব্রত মণ্ডলেরই শক্ত ঘাঁটি বীরভূমকে।

কদিন আগেই রাজ্যজুড়ে বিজেপি যে সমস্ত জায়গায় রথযাত্রা করার কর্মসূচি দিয়েছিল তার মধ্যে বীরভূম ছিল তাদের অন্যতম টার্গেট। কিন্তু আইনি জটিলতার যে আদালতে ধাক্কা খাওয়াই মুকুল রায়- দিলীপ ঘোষদের সেই আশা পূর্ণ হয়নি। যা নিয়ে রাজ্যের শাসক দল ঘাসফুল শিবিরের পক্ষ থেকেও বিজেপির উদ্দেশ্যে কাটা হয়েছে জোর টিপ্পনী।

আর এবার 22 তারিখ মালদহের সভার পর বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের ঝাড়গ্রাম ও বীরভূমে সভা করার কথা থাকলেও তা থেকে পিছিয়ে এলেন তিনি।আর এতেই বিজেপি বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে দেখে ভয় পেয়েই সেই জায়গায় সভা করা থেকে পিছু হটেছে বলে গেরুয়া শিবিরের উদ্দেশ্যে জোর কটাক্ষ ছুড়ে দিয়েছে রাজ্যের ঘাসফুল শিবির। তবে বিজেপির যুক্তি, যেদিন অমিত শাহ মালদায় সভা করেছিলেন তার কদিন আগেই তিনি সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে নার্সিংহোমে ভর্তি ছিলেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এমনকি যখন তিনি সভাস্থলে বক্তব্য রাখছিলেন তখনও তিনি পুরোপুরি সুস্থ হননি। আর তাই শারীরিক অসুস্থতার জেরেই তার বাংলায় পরবর্তী কর্মসূচি বাতিল করা হয়েছে। তবে অমিত শাহর বদলে সেই কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন বিজেপির অন্যান্য নেতারা বলে জানা গেছে।

এদিকে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি সভা করতে না আসায় বিজেপির দূর্বলতার সুযোগকে বেছে নিয়ে মাঠে নেমে পড়েছেন বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা রাজ্যের দাপুটে তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল। এদিন তিনি বলেন, “ঝাড়গ্রামের সভা না করেই ভয়ে পালিয়ে গিয়েছে। আসলে পরের সভাগুলোতে যে লোক হবে না উনি তা বুঝতে পেরেছেন। আর তাই মাঠ ভরবে না বুঝেই এখন গল্প বানাচ্ছে। আসলে ওরা ভয় পেয়েছে।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, রাজনীতিতে শিরোনামে বেঁচে থাকাই মুল ব্যাপার। আর তাই তো শারীরিক অসুস্থতা হোক বা অন্য কোনো কারণ বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের রাজ্যের অন্যান্য জায়গার কর্মসূচীগুলো বাতিল হওয়ায় এবার তাকে কেন্দ্র করে সেই গেরুয়া শিবিরের দুর্বলতা তুলে ধরে বিজেপিকে খোঁচা দিলেন বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় ভাই অনুব্রত মণ্ডল ওরফে কেষ্ট।

Top
error: Content is protected !!