এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > দুর্নীতি রুখতে দলীয় নেতাদের এবার বড়সড় হুঁশিয়ারি অনুব্রত মন্ডলের – জানুন বিস্তারিত

দুর্নীতি রুখতে দলীয় নেতাদের এবার বড়সড় হুঁশিয়ারি অনুব্রত মন্ডলের – জানুন বিস্তারিত


বরাবরই দুর্নীতির অভিযোগে এ রাজ্যের শাসক দলকে বিরোধী দল তীব্র আক্রমণ করে এসেছে। এমনকি রাজ্যের নেতা, সাংসদ, বিধায়কদের ‘দিদিকে বল’ জনসংযোগ কর্মসূচিতে গিয়ে স্থানীয় মানুষদের কাছে এলাকার তৃণমূল নেতাদের সম্পর্কে দুর্নীতির অভিযোগ শুনতে হয়েছে। দুর্নীতিকে কোনোভাবেই এড়াতে পারছে না তৃণমূল। তৃণমূল পরিচালিত সবকটি প্রকল্প নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ রাজ্যের বিভিন্ন স্তরে। এবার দুর্নীতি রুখতে বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলের বড়োসড়ো হুঁশিয়ারি দলীয় কর্মীদের।

বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল রবিবার বীরভূমের মহম্মদবাজারে আয়োজিত বিজয়া সম্মিলনীতে যোগ দিয়ে কড়া ভাষায় দলীয় নেতাদের হুঁশিয়ার করলেন। পরিষ্কার জানালেন, আবাস যোজনায় যদি এমন কেউ সুযোগ পায় যার বাড়ি রয়েছে, তাহলে যে সুবিধা দেবে, তাঁকে জেল খাটানো হবে।

তিনি আরো বলেছেন, বীরভূম জেলায় 62000 বাড়ির আবেদন এসেছে, তাই তিনি প্রধান, পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যদের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন, যদি কারোর বাড়ি থাকে তাহলে তাকে যেন তাঁকে এই যোজনায় সুযোগ না দেওয়া হয়। কোনভাবে যদি জানা যায় যে, এমন কোন ব্যক্তিকে বাড়ি দেওয়া হয়েছে যার নিজস্ব বাড়ি আছে, তাহলে সেই জনপ্রতিনিধিকে জেল খাটতে হবে। তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, যাঁর বাড়ি থাকবে না, তাঁকে বাড়ি দিতেই হবে। সে অন্য কোন দলের হলেও তাঁকে বাড়ি দিতে হবে।

দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে এদিন অনুব্রত মণ্ডল বলেন, ভুল ত্রুটির কারণেই – সে প্রধান দের বা লিডারদের যারই হোক না কেন, চারটি অঞ্চলে তৃণমূল লোকসভা ভোটে হেরে গেছে। সেই বিষয়ে লক্ষ্য রেখে এদিন অনুব্রত মণ্ডল জানালেন, সামনে 96 টি পুরসভার ভোট আছে। সেই ভোটের কথা মাথায় রেখে অনুব্রত মণ্ডল সবাইকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছেন।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এনআরসি ইস্যুতে এদিন অনুব্রত মণ্ডল বলেন মুখ্যমন্ত্রীর সুরে সুর মিলিয়ে, বাংলায় এনআরসি করতে দেওয়া হবে না। রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যদি এনআরসি নিয়ে বিরোধিতা করেন, তাহলে এ রাজ্যে এনআরসি চালু হবে না।

রবিবার মোহাম্মদ বাজারে পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতির সহ সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে বিজয়া সম্মিলনীর আয়োজন করা হয়। এই অনুষ্ঠানে অনুব্রত বাবু ছাড়াও রাজ্যের মন্ত্রী আশীষ বন্দ্যোপাধ্যায়, জেলা পরিষদের সভাপতি বিকাশ রায়চৌধুরী সহ অনেক কর্তাব্যক্তিরা ছিলেন।

সমগ্র বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, লোকসভা ভোটে বিজেপির কাছে পিছিয়ে পড়ে তৃণমূল যথেষ্ট কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে 2021এর বিধানসভা ভোট মাথায় রেখে তৃণমূল তাঁর ঘর গোছাতে চাইছে। আর সেই লক্ষ্যেই বীরভূমের অনুব্রত মণ্ডল দুর্নীতি মোকাবিলায় কড়া ভাষায় দলীয় কর্মীদের হুঁশিয়ারি দিলেন।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধী দলের বক্তব্য, রাজ্যের শাসক দলের স্থানীয় স্তর থেকে দলের উচ্চ স্তর পর্যন্ত প্রত্যেকেই কম-বেশি দুর্নীতিতে জড়িত। তাই সবাইকে এই দুর্নীতির হাত থেকে বার করে নিয়ে আসা সহজ হবে না। তবে আপাতত পশ্চিমবঙ্গে একের পর এক ভোট আসছে। তাই পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক মহলের নজর এখন সেই দিকে।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!