এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আবার অনুব্রত গড়ে বিজেপিতে ভাঙন ধরালো তৃণমূল, নিজেদের লোক নিয়ে নাটক বলে কটাক্ষ গেরুয়া শিবিরের

আবার অনুব্রত গড়ে বিজেপিতে ভাঙন ধরালো তৃণমূল, নিজেদের লোক নিয়ে নাটক বলে কটাক্ষ গেরুয়া শিবিরের

 

বীরভূম তৃণমূলের খাসতালুক বলে পরিচিত। সদ্য সমাপ্ত লোকসভা ভোটে সেই বীরভূমে বিজেপি কিছুটা হলেও দাগ কাটতে পেরেছে। যা চিন্তা বাড়িয়েছে জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের বাহিনীর। কিন্তু লোকসভার ফলাফলের কিছু দিন পেরিয়ে যেতে না যেতেই ফের ময়দানে নেমে চমক দেখাতে শুরু করেছেন অনুব্রত মণ্ডল। একের পর এক জেলার বিভিন্ন এলাকায় বিজেপির সংগঠনে ভাঙ্গন ধরিয়ে বীরভূমের তৃণমূল শক্তিশালী বলে প্রমাণ করার চেষ্টা করছেন তিনি।

সূত্রের খবর, শুক্রবার বোলপুর এবং ইলামবাজার ব্লকের বিজেপির বেশকিছু কর্মী-সমর্থক কংগ্রেসে যোগ দেন। এদিন জেলা তৃণমূলের কার্যালয়ে অনুব্রত মণ্ডলের হাত থেকে পতাকা তুলে নিতে দেখা যায় শান্তিনিকেতন থানার আলবাধা সর্পলেহনা গ্রাম পঞ্চায়েতের বেশকিছু বিজেপির কর্মী-সমর্থককে। জানা যায়, এদিন এই পঞ্চায়েতের বিজেপির অঞ্চল প্রমুখ সুনীল রায় সহ অনেকেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে শীর্ষা পঞ্চায়েত। যেখানে তৃণমূল কর্মীদের মারধর করার অভিযোগ উঠেছিল ভারতীয় জনতা পার্টির বিরুদ্ধে। অনেকেই উপলব্ধি করেছিলেন, হয়ত বা অনুব্রত মণ্ডলের শক্ত ঘাটি বীরভূমেও এবার বিজেপি তাদের বিস্তার ঘটাতে শুরু করবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কিন্তু এদিন শীর্ষা অঞ্চল থেকে তৃণমূলে যোগদান বিজেপির অস্বস্তি অনেকটাই বাড়িয়ে দিল বলে মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের। সূত্রের খবর, এদিন ইলামবাজার ব্লক তৃণমূল সভাপতি ফজলুর রহমানের হাত থেকে প্রচুর বিজেপি কর্মী সমর্থক তৃণমূলে যোগদান করেন। আর বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের নিজেদের দলে যোগদান করিয়ে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত ঘাসফুল শিবির। এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “এই সমস্ত এলাকার অনেকেই ভুল পথে পরিচালিত হয়ে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছিল। এখন নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের উন্নয়নের হাতকে শক্ত করতে তৃণমূলে যোগ দিলেন।”

তবে তৃণমূলের তরফে এই যোগদান নিয়ে গর্ব প্রকাশ করা হলেও তাতে গুরুত্ব দিতে নারাজ গেরুয়া শিবির। এদিকে এই প্রসঙ্গে বীরভূম জেলা বিজেপির সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি সরে গিয়েছে। তাই নিজেদের কর্মীদেরই যোগদান করিয়ে মিথ্যা নাটক করছে।” তবে যে যাই বলুন না কেন, বীরভূমে যেভাবে একদিন বিজেপি, আর একদিন তৃণমূলের উত্থান ঘটছে, তাতে শেষপর্যন্ত কোন দিকে জল গড়ায়, সেদিকেই নজর রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!