এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মুকুল রায়ের দুর্নীতির অভিযোগের উত্তরে মুখ খুলে জল্পনা বাড়ালেন অনুব্রত মন্ডল

মুকুল রায়ের দুর্নীতির অভিযোগের উত্তরে মুখ খুলে জল্পনা বাড়ালেন অনুব্রত মন্ডল

গতকাল বীরভূমের রাজনগরের তাঁতীপাড়ায় বিজেপির এক জনসভা থেকে বিজেপি নেতা মুকুল রায় দুর্নীতির অভিযোগ আনেন তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডলের বিরুদ্ধে। ইটা শুধুমাত্র ‘ট্রেলার’ দেখাচ্ছেন জানিয়ে অনুব্রত মন্ডলের বিরুদ্ধে চালকল ও জমি-দুর্নীতির অভিযোগ মুকুল রায়। তিনি বলেন, এটা (হাতের মুঠোয় চাল দেখিয়ে) কোন রাইস মিলের জানেন? মিলটার নাম ভোলেবোম রাইস মিল। এর মালিক কে? কবে তৈরি? ২০১৬-১৭ সালে ১৮,০২৭ বস্তা চাল অন্ত্যোদয় যোজনায় সরবরাহ করেছে এই মিল। বোলপুর থানার অন্তর্গত কালিকাপুর, গয়েশপুর, খাসকদমপুর ও বোলপুর মৌজায় ৪২৫ কাটা জমি কেনা হয়েছে ২০১৪ সালের পরে। তৃণমূলের জেলা সভাপতিকে গিয়ে জিজ্ঞাসা করুন এ সবের মালিক কে? নামটা তিনিই বলবেন।
আর মুকুল রায়ের এইসব অভিযোগের ভিত্তিতে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা তাকিয়ে ছিলেন এবার অনুব্রত মন্ডল কি জবাব দেন সেদিকে। মুখ খুললেন অনুব্রতবাবু, তবে রাইস মিল নিয়ে তিনি কিছু বলেননি। শুধু বলেছেন, সব মিথ্যে, উনি মিথ্যুক। গয়েশপুর মৌজায় জমি ২০০২ সালে কেনা হয়েছে, সেটা আমি প্রমাণ করে দিতে পারি। মুকুল রায়ের অভিযোগের পরে ‘জবরদস্ত’ একটা উত্তরের প্রতীক্ষা করেছিল রাজনৈতিক মহল, কেননা মুকুলবাবু আগেই জানিয়েছিলেন, পরের সভায় আমি ওঁর সম্পর্কে এমন কিছু বলব, তাতে হয় দলই ওকে বার করে দেবে, নয়তো নিজেই দল ছেড়ে দেবে, এটা আমার চ্যালেঞ্জ। সেখানে মুকুলবাবু ‘ট্রেলারেই’ দু-দুটি দুর্নীতির দায় চাপিয়ে দেওয়ার পরও অনুব্রত মন্ডল-সুলভ উত্তর না পাওয়ায় গুঞ্জন শুরু হয়ে গেছে রাজনৈতিক মহলে। তাহলে কি মুকুল রায় মুখ খুলতেই সত্যিই চাপে পরে গেছেন অনুব্রত মন্ডল নাকি এটা বড় কোনো ঝড়ের পূর্বলক্ষণ? উত্তর পেতে ভবিষ্যতের দিকেই তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!