এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > লোকসভা ভোটে পাচনের বাড়িতে ভালো ফসল ঘরে তোলার নিদান দিয়ে বড় পদক্ষেপ অনুব্রত মণ্ডলের

লোকসভা ভোটে পাচনের বাড়িতে ভালো ফসল ঘরে তোলার নিদান দিয়ে বড় পদক্ষেপ অনুব্রত মণ্ডলের

কদিন আগেই পাচনের বারি দিয়ে অনুর্বর জমিকে উর্বর করার কথা বলেছিলেন বীরভূমের জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে তুমুল শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। আর যেমন কথা, তেমনি কাজ। এবার বীরভূম জেলার প্রতিটি ব্লকেই সেই পাচন বিলি করার নিদান দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় কেষ্ট।

সূত্রের খবর, গতকাল বীরভূমের নানুরের তিনটি অঞ্চলে প্রচুর পাচন বিলি করা হয়। আর এরপরই ময়ুরেশ্বরের কোটাসুরের জনসভা থেকে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “পাচনের বারিতেই ভালো ফসল হবে। লোকসভা ভোটের ফলাফলেই তা দেখতে পাবেন।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কদিন আগেই বিজেপির পক্ষ থেকে গণতন্ত্র বাঁচাও নামক রথযাত্রা কর্মসূচির ঘোষণা করা হলে সেই বিজেপির কর্মসূচির পাল্টা কর্মসূচি হিসেবে বীরভূম জেলা তৃণমূলের পক্ষ থেকে খোল করতাল বিলি করার কথা ঘোষণা করেছিলেন অনুব্রত বাবু। এদিন সেইমত 4000 খোল ও 8000 করতালও বিলি করা হয়েছে। যেখানে উপস্থিত ছিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল, মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা, জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায় চৌধুরী, বীরভূম জেলা তৃণমূলের সহ সভাপতি রানা সিংহ, ব্লক তৃণমূলের সভাপতি আশিস চন্দ্র সহ অন্যান্যরা।

এদিনের অনুষ্ঠান থেকে ফের আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে বিরোধীদের উদ্দেশ্যে কার্যত হুঁশিয়ারি দেন জেলা তৃণমূল সভাপতি। তিনি বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে আমরা এক ইঞ্চিও মাটি ছাড়ব না। মোদিকে দেখাতে হবে এই রাজ্যে তাঁর কোন জায়গা নেই।” অন্যদিকে ব্রিগেড সমাবেশে এই বীরভূম জেলা থেকে রেকর্ড সংখ্যক লোকও এদিন নিয়ে যাওয়ার কথা শোনা যায় অনুব্রত মণ্ডলের গলায়। তিনি বলেন, এই বীরভূম জেলা থেকে আমরা ব্রিগেডে 5 থেকে 6 লক্ষ মানুষকে নিয়ে যাব। যত টুরিস্ট বাস আছে সেগুলি সব তুলে নেবো।”

এদিকে এদিনই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে নানুরের তিনটি অঞ্চলে ব্যাপক ভাবে পাচন বিলি করা হয়েছে বলে জানান অনুব্রত মণ্ডল। আর শাসক দলের জেলা সভাপতির মুখ থেকে এহেন কথা শুনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে বিরোধীরা। এ প্রসঙ্গে বীরভূম জেলা বিজেপির সভাপতি রামকৃষ্ণ রায় বলেন, “উনি যদি পাচন বের করেন, তাহলে আমরা ডাং বের করব।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে বীরভূম জেলা সিপিএমের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সঞ্জীব বর্মন বলেন, “কেউ যদি নিজেকে এভাবে বীরভূম বাসীর কাছে উপহাসের পাত্র করে তোলে, তার জন্য সহানুভূতি’ ছাড়া আর কিছুই দেওয়ার নেই। বীরভূমের প্রতিটি বাড়িতেই পাচন তৈরি হচ্ছে যার লক্ষ্য একজনই।” সব মিলিয়ে এবার “পাচন” নিয়ে সরগরম বীরভূমের রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!