এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > অনুব্রত মন্ডলের বিরুদ্ধে মুকুল রায়ের অভিযোগকে কি এবার মান্যতা দিলেন খাদ্যমন্ত্রী?

অনুব্রত মন্ডলের বিরুদ্ধে মুকুল রায়ের অভিযোগকে কি এবার মান্যতা দিলেন খাদ্যমন্ত্রী?

অনুব্রত মন্ডলের বিরুদ্ধে মুকুল রায়ের অভিযোগকে কি এবার মান্যতা দিলেন খাদ্যমন্ত্রী?এমনি প্রশ্ন উঠেছে রাজনৈতিকমহলের একাংশে। কেননা কয়েকদিন আগেই বিজেপি নেতা মুকুল রায় বীরভূমের একটু সভা থেকে অনুব্রত মন্ডলের নাম জড়িয়েছিলেন চাল দুর্নীতিতে।অবশ্য অন্যদিকে এর এক শিবির বলছেন যে এর সাথে অনুব্রতবাবুর কোনো সম্পর্ক নেই কেননা খাদ্যমন্ত্রী অনুব্রতবাবুকে কিছু বলেন নি।বা রেশনে তাঁর মিল থেকে চাল আসে কিনা বা তার মান খারাপ কিনা সে নিয়ে কিছু জানা যায়নি। যদি এমন কিছু হতো তবে মুকুলবাবুর কথার সাথে এর মিল কোথাও পাওয়া যেত। ঘটনা হলো বীরভূমে রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে নিম্নমানের চাল দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ।আর তাই নিয়ে রাইস মিল মালিকদের হুমকি দিলেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।তিনি জানান, ”এভাবে খারাপ মানের চাল দিলে রাইস মিল মালিকদের লাইসেন্স বাতিল করে দেওয়া হবে।”তিনি আরো জানান যে, ”বীরভূমে জেলার ৪৮টি রাইস মিলের কাছ থেকেই সরকার চাল কিনেছে। তাদের মধ্যে ১২ টি মিলকে চিহ্নত করা হয়েছে, যারা খারাপ মানের চাল দিচ্ছে।”রাইস মিল অ্যাসোসিয়েশনের জেলা সম্পাদক সঞ্জীব মজুমদার জানান, সরকারি গুদামে ছ-সাত মাস চাল মজুত থাকে তাই চালের মান খারাপ হয়ে যায়। এই নিয়ে গত সপ্তাহে অনুব্রত মণ্ডল ও জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী মিল মালিকদের ডেকে খারাপ চাল না দেওয়ার জন্য সতর্ক করেছেন।পাশাপাশি তিনি জানান,- ”আমরা সেই পথেই খাদ্যমন্ত্রীর নির্দেশেই চলব। যারা খারাপ মানের চাল দেবে সরকার তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।” জ্যোতিপ্রিয়বাবু বলেন পনেরো দিনের মধ্যে খারাপ চাল বদলে ভালো চাল দেওয়া হবে।জ্যোতিপ্রিয়বাবুর “খারাপ মানের চাল দিলে রাইস মিল মালিকদের লাইসেন্স বাতিল করে দেওয়া হবে” এই কথার সূত্র ধরেই রাজনৈতিক মহলের ধারণা যে ঘুরিয়ে অনুব্রতবাবুকেও হয়তো সাবধান করে দিলেন খাদ্যমন্ত্রী। যেন অনুব্রতবাবু এমন কোনো কাজ না করেন। তবে মুখ্যমন্ত্রীর কাছের মানুষ এমন করবেন না বলেই মত আর এক অংশের।

Top
error: Content is protected !!