এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > নিজের গড়েই আক্রান্ত হেভিওয়েট নেতা – সেখানেও ‘বিজেপির-ভূত’ দেখছেন অনুব্রত মন্ডল?

নিজের গড়েই আক্রান্ত হেভিওয়েট নেতা – সেখানেও ‘বিজেপির-ভূত’ দেখছেন অনুব্রত মন্ডল?

কখনও বিরোধীদের হুমকি দিয়ে কখনও আবার প্রকাশ্য সভায় পুলিশকে বোম মারার কথা বলে বারবারই খবরের শিরোনামে এসেছেন বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।কখনও শাসক-বিরোধী সংঘর্ষ কখনও আবার নিজের দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে প্রায় সবসময়ই উত্তপ্ত থাকে কেষ্টার গড় বীরভূম।কিছুদিন আগেই একবার খয়রাশোলের তৃণমূল ব্লক সভাপতির ওপর হামলা হয়।কপাল জোরে সেবার অক্ষত থাকেন তিনি।কিন্তু রবিবার দুপুরে আবারও আক্রান্ত হন খয়রাশোলের ব্লক সভাপতি দীপক সরকার। যার জেরে রীতিমত রেগে আগুন বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। এদিন সন্ধ্যায় অনুব্রত মণ্ডল বলেন “কাউকে ছেড়ে কথা বলব না”।কার্যত বিজেপির উদ্দেশ্যে এভাবেই একরকম হুঁশিয়ারি দিলেন অনুব্রত। তাঁর অভিযোগ, ঝাড়খণ্ড থেকে লোক এনে এখানে গন্ডগোল পাকাচ্ছে বিজেপি।এভাবে অশান্তি করলে একজনও ছাড় পাবে না বলে হুমকি দিয়েছেন তৃণমূলের কেষ্টা ।

বীরভূমে অনুব্রত মণ্ডলের ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত খয়রাশোলের ব্লক সভাপতি দীপকবাবু রবিবার কেন্দ্রগাড়িয়ায় নিজের বাড়িতে ফিরছিলেন।হঠাৎই রাস্তায় তাঁকে উদ্দেশ্য করে গুলি ছোঁড়ে কয়েকজন দুষ্কৃতী। তাঁর চোয়াল ও কোমরে গুলি লাগায় তিনি বাইক থেকে পড়ে যান আর এরপরই তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপানো হয় ।বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন দীপক সরকার।

এদিনের ঘটনায় অনুব্রত মণ্ডল বিজেপির দিকে অভিযোগের তীর এনে বলেন যে দীপক খুব ভাল সংগঠক ও আমার খুব কাছের মানুষ। খয়রাশোল এলাকায় অন্য কোনও দলের সংগঠন নেই। নিজেদের সংগঠন বাড়াতে বিজেপি চাইছে দীপককে সরিয়ে দিতে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো  করুন এই লিঙ্কেখবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক

পাশাপাশি বিজেপির বিরুদ্ধে আরো অভিযোগ এনে অনুব্রতবাবু জানান যে, খয়রাশোলের পাশেই ঝাড়খণ্ড তাই সেখান থেকে লোক এনে সেখান থেকে লোক ঢুকিয়ে বিজেপি বারবার গোলমাল করার চেষ্টা করছে। দীপককে খুনের চেষ্টা সেই ভাবেই করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ”ওরা কিন্তু ভুল করছে। আমি কাউকে ছেড়ে কথা বলব না। আমার জেলায় একটাও খুন-জখম নেই।” যদিও এখনো পর্যন্ত বিজেপির তরফ থেকে এনিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!