এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > সবংয়ে আক্রান্ত অন্তরা ভট্টাচার্য, তবুও পুলিশ নীরব দর্শক, দাবি বিজেপির

সবংয়ে আক্রান্ত অন্তরা ভট্টাচার্য, তবুও পুলিশ নীরব দর্শক, দাবি বিজেপির

সবং বিধানসভা উপনির্বাচনের জন্য আর হাতে গোনা কয়েকদিন বাকি আর এরমাঝেই শাসকদলের মাত্রা ছাড়া সন্ত্রাসের শিকার বিজেপি নেতা-কর্মীরা বলে দাবি বিজেপি নেতৃত্ত্বের। কলকাতার এক ওয়েব পোর্টালে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে ভয়ংকর অভিযোগ এনেছেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক তথা দলীয় পর্যবেক্ষক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই পোর্টালের খবর অনুযায়ী রাজুবাবুর বক্তব্য, ‘বাম আমলের চেয়েও ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করেছে তৃণমূল। পুলিশকে জানিয়েও লাভ হচ্ছে না। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বসিয়ে রাখা হচ্ছে, এই অবস্থায় নির্বাচন অসম্ভব। আর এরজন্য তিনি জেলা সভাপতি রতন দত্ত, যুব নেতা শুভজিত্‍ রায় সহ বিজেপি নেতা-কর্মীদের নিয়ে সবং থানার পাশাপাশি খড়গপুর মহকুমা শাসক ও জেলাশাসকের দফতের ঘেরাও আন্দোলন করেন।
ওই পোর্টালে আরো দাবি করা হয়েছে, রাজুবাবু তাঁদের কাছে আরো অভিযোগ করেছেন, সবং ভোটে একচ্ছত্রভাবে সন্ত্রাস চালাচ্ছে তৃণমূল, কংগ্রেস বা সিপিএম ভোটের পিকচারে নেই। তাই হেরে যাওয়ার ভয়ে বেছে বেছে বিজেপির নেতা-কর্মীদের উপর হামলা চালানো হচ্ছে, বাড়ি ভাঙচুর করা হচ্ছে। আমাদের প্রার্থী অন্তরা ভট্টাচার্যকেও আক্রমণ করা হয়েছে। থানায় সাতটি এফআইআর করা হলেও পুলিশ দর্শকের ভূমিকা নিয়েছে, কোনও ব্যবস্থাই নিচ্ছে না। নিরপেক্ষভাবে ভোট হলে সবংয়ে মানসবাবুর পরাজয় নিশ্চিত। একই সঙ্গে ওই পোর্টালের খবর থেকে জানা যাচ্ছে, বিজেপি নেতাদের অভিযোগ, বাম আমলের সন্ত্রাসকেও ছাপিয়ে গিয়েছে তৃণমূল। বরং বামফ্রন্ট যেখান থেকে ছেড়ে গেছিল তৃণমূল সেখান থেকেই সন্ত্রাস, খুনের রাজনীতি শুরু করেছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী সবং এলেও সবং থানার পুলিশ তাদের বসিয়ে রেখেছে, প্রয়োজন যেখানে সেখানে পাঠাচ্ছে ফাঁকা রাস্তায় রুটমার্চ করাচ্ছে। যদিও এই খবরের সত্যতা বা সূত্র সম্পর্কে ওই ওয়েব পোর্টালে কিছু লেখা নেই, প্রিয়বন্ধু বাংলার তরফেও এই খবরের সত্যতা যাচাই করে দেখা সম্ভব হয় নি। এই প্রবন্ধ সম্পূর্ণরূপে ওই পোর্টালে প্রকাশিত খবরের পরিপ্রেক্ষিতে করা, কোনোভাবেই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নয় বা কোনো ব্যক্তি বা দলের সম্মানহানির উদ্দেশ্যে রচিত নয়।

আপনার মতামত জানান -
Top