এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আবারও আরও একটা ‘মানস ভূঁইয়া কান্ড’ বিধানসভায় দেখাতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস

আবারও আরও একটা ‘মানস ভূঁইয়া কান্ড’ বিধানসভায় দেখাতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস

বিধানসভার সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক অ্যাকাউন্টস্ কমিটি( পিএসসি) চেয়ারম্যান পদটি বিরোধীরাই পাবেন এমন নিয়মই বলবৎ ছিল আগে। কিন্তু বছর দুই আগে শাসকবিরোধী দলগুলোর ভিতর সংঘাত শুরু হলে সেই নিয়মকে উপেক্ষা বিধানসভার এই পদটিতে জাকিয়ে বসে তৃণমূল বিধায়ক। সেইসময়ের কংগ্রেস বিধায়ক মানস ভূঁইয়াকে পিএসসির চেয়ারম্যান হিসাবে গ্রহন করতে আপত্তি ছিল কংগ্রেসের। কংগ্রেসের সেই আপত্তিকে অগ্রাহ্য করে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের ইচ্ছেতে তাকে ওই পদটি দেন। কংগ্রেসের সায় ছিল বাম তরফের নেতা সুজন চক্রবর্তীকে ওই স্থানে বসানোর। যাই হোক এই পিএসসির চেয়ারম্যান বাছাই ইস্যুতে শাসকবিরোধী দলের অন্দরেই ঠান্ডা লড়াই চলতে থাকে। ওদিকে,মানসবাবু কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলের টিকিট কাটলেও তাঁর চেয়ারম্যান পদটি অব্যাহত থাকে। এরপর রাজ্যসভার চেয়ারম্যান পদটি পাওয়ায় মানস বাবু পিএসসির চেয়ারম্যান পদটি থেকে সরে যান। ওই জায়গায় ফের আসে মমতা ঘনিষ্ঠ এক তৃণমূল বিধায়ক শঙ্কর সিং। লাগাতার দুবার শাসক শিবিরে বিধানসভার চেয়ারম্যান পদটি যাওয়ায় ভীষণ ভাবে চটে যান আব্দুল মান্নান এবং সুজন চক্রবর্তীরা। তাই এবার শাসকদলের কাছ থেকে নিজেদের অধিকারটি ছিনিয়ে নিতে মরিয়া শাসকবিরোধী দল গুলো।

 আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

ওদিকে, আগামী জুলাই মাসের ৪ তারিখ শেষ হতে চলেছে পিএসসির মেয়াদ। আর বিধানসভার প্রচলিত নিয়ম মোতাবেক সেই মেয়াদ বাড়ানো সম্ভবও নয়। উল্লেখ্য,গতবছর পিএসসির মেয়াদ একবছর বাড়িয়েও দিয়েছিলেন স্পিকার। এর প্রতিবাদে বাম-কংগ্রেস মিলিত ভাবে প্রতিবাদও জানিয়েছিলো। তবে এবার নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন চেয়ারম্যান বাছাই কর্মসূচি শুরু করার কথা অধ্যক্ষের। আর এ বছর যাতে চেয়ারম্যানের কুর্সিটি বিরোধীদের ঝুলিতে আসে তাঁর জন্য শাসক বিরোধী বাম-কংগ্রেস শিবির ইতিমধ্যেই জোট বাঁধতে শুরু করেছে। বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী নাকি চেয়ারম্যান পদটি কংগ্রেসকে দেওয়ার জন্য রাজিও হয়ে গেছেন। এ নিয়ে এক দফা মিটিংও হয়েছে সুজনবাবুর কংগ্রেস পরিষদীয় দলনেতা আব্দুল মান্নানের সঙ্গে। আগামী বিধাবসভার বাদল অধিবেশনে কীভাবে বাম- কংগ্রেস যৌথ উদ্যোগে শাসকদলকে আক্রমণ করবে তাঁর রণনীতিও চূড়ান্ত করা হয় এদিন। তবে পিএসসি ইস্যু নিয়ে আগেই শাসকদলের সঙ্গে বৈঠকে বসতে নারাজ দুই বিরোধী পক্ষই। এমনটাই জানা যাচ্ছে বিধানসভা সূত্রের খবর থেকে। তবে বাম- কংগ্রেসের ভিতর এই ইস্যু নিয়ে ফের যে সংঘাত দানা বাঁধবে না এ আশঙ্কা একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না ওয়াকিবহাল মহল। যদিও বিজেপি বিরোধী জাতীয় রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের খাতিরে কংগ্রেসের দাবী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অস্বীকার করার সম্ভাবনা কম বলেও আন্দাজ করছেন রাজ্য রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞের একাংশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!