এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ব্রিগেডে হাসিমুখে পাশে বসে থাকলেও, এবার কি বড় ধাক্কা দিতে চলেছেন দিদির এই বিশেষ বন্ধু?

ব্রিগেডে হাসিমুখে পাশে বসে থাকলেও, এবার কি বড় ধাক্কা দিতে চলেছেন দিদির এই বিশেষ বন্ধু?



২১ শে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন ২০১৯ এর ১৯ শে জানুয়ারী ব্রিগেডে বিজেপি বিরোধী দেশের সকল রাজনৈতিক দলকে নিয়ে এক বৃহত্তর সমাবেশ করবেন। আর সেই লক্ষ্যে দুর্গাপুজো শেষ হতেই কার্যত নাওয়া-খাওয়া ভুলে গেছেন শাসকদলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা। আর সেই অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে – ব্রিগেড আয়োজনের শেষে তৃপ্তির হাসি সবার মুখেই।

যদিও, বিরোধীরা কটাক্ষ করছেন ব্রিগেড নাকি ভরে নি! কিন্তু উপস্থিত একের পর এক জাতীয় রাজনীতির হেভিওয়েট নেতারা উপস্থিত জনতার পাশাপাশি অকুন্ঠ প্রশংসা করে গেলেন তৃণমূল নেত্রীর। এমনকি, তৃণমূল নেত্রীর অনুরোধে হাতে হাত মিলিয়ে সাংবাদিকদের জন্য দাঁড়িয়েও গেলেন সকলে। কিন্তু, ব্রিগেড শেষ হতেই – সেই হাসিখুশি ছবির মধ্যেই চিড় ফাট? কেননা, কিছুদিন আগেই সেই বৃহত্তর জোটে কংগ্রেসকে ব্রাত্য করে জোট ঘোষণা করেছেন মায়াবতী-অখিলেশ যাদব।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এবার, সেই একই পথে হাঁটতে চলেছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। কিছুদিন আগেই তেলেঙ্গানাতে বিধানসভা নির্বাচনের আগে – কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়ার অঙ্গীকার নিয়ে মহাজোট ঘোষণা করেছিল টিডিপি ও কংগ্রেস। জোটে সিলমোহর দিতে হাজির ছিলেন স্বয়ং রাহুল গান্ধী। কিন্তু নির্বাচনের শেষে দেখা গেল – ভরাডুবি হয়েছে সেই জোটের। ফলে আসন্ন লোকসভাতে তো বটেই, এমনকি অন্ধ্রপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনেও আর কংগ্রেসের জোটসঙ্গী হতে চাইছে না টিডিপি।

প্রসঙ্গত, স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও যা ইঙ্গিত দিয়েছেন তাতে পশ্চিমবাংলায় তিনি কংগ্রেসের সঙ্গে জোটে যাবেন না। তাঁর দেখানো পথেই উত্তরপ্রদেশেও অখিলেশ-মায়াবতীর জোটে ঠাঁই মেলেনি কংগ্রেসের। আর এবার অন্ধ্রপ্রদেশেও সেই একই হাল হতে চলেছে রাহুল গান্ধীর দলের। আজকের ব্রিগেডে তাই হাসিহাসি মুখে কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে ও অভিষেক মনু সিঙ্ঘভিকে চন্দ্রবাবু নাইডুর পাশে বসে থাকতে দেখা গেলেও – সেই হাসি বোধহয় খুব বেশি চওড়া হবে না কংগ্রেসের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!